বাংলাদেশের অর্থায়নে নেপালে নির্মিত হবে বৌদ্ধ মন্দির

ঢাকা অফিস ॥ বাংলাদেশের অর্থায়নে নেপালের লুম্বিনীতে একটি বৌদ্ধ বিহার নির্মাণ করা হবে। এ লক্ষ্যে নেপালের লুম্বিনীর ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে স্বাক্ষরের জন্য প্রস্তাবিত চুক্তির খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। গতকাল সোমবার ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। সচিবালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সে মন্ত্রিসভার সংশ্লিষ্ট সদস্যরা এ সময় যুক্ত ছিলেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, এটি ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের কাছে এসেছে। লুম্বিনী ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট গৌতম বুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত এলাকা। এই স্থানের সঙ্গে বিভিন্ন দেশের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বিদের সঙ্গে একটি যোগসূত্র রয়েছে। সেখানে একটা আশ্রম বা প্যাভিলিয়ন নির্মাণের জন্য বাংলাদেশ থেকে আবেদন করার পর তারা একটা প্লট দিয়েছে। বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে এটি প্রসেস হয়েছে। বাংলাদেশের বৈধ আশ্রম নির্মাণ, প্যাভিলিয়নের খরচ বহন করতে হবে এই শর্তে দেওয়া হয়েছে। এজন্য মোট ৫১ কোটি ২০ লাখ ৬০ হাজার ৫২৭ টাকার প্রয়োজন হবে। আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে লুম্বিনী ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্ট ডিজাইনসহ সব কার্যক্রমে রাজি হয়েছে এবং অনুমোদন দিয়েছে। তিনি বলেন, যেহেতু এটা অন্য দেশের সঙ্গে একটি চুক্তি সে কারণে মন্ত্রিসভায় এসেছে এবং মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিয়েছে।

আরো খবর...