বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা একে অপরের অবিচ্ছেদ্য অংশ

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব-এঁর জন্মবার্ষিকী সভায় এমপি বাদশা

শরীফুল ইসলাম ॥ কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. আ. কা. ম. সরওয়ার জাহান বাদশা বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা একে অপরের অবিচ্ছেদ্য অংশ। বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নীতি আদর্শ পরামর্শ এবং দক্ষ দিক নির্দেশনায় বঙ্গবন্ধু এদেশের মানুষকে মুক্তির পথ দেখিয়েছেন। বঙ্গমাতার প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার সুযোগ না হলেও তিনি ছিলেন দক্ষ স্বশিক্ষিত একজন সুশিক্ষিত নারী। অনেক কঠিন সময়ে কঠিন সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বাঙ্গালীর মুক্তির সনদ বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা আন্দোলনেও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের সাহসী ভূমিকা ছিল। ঐতিহাসিক ৭মার্চের ভাষনের পূর্বে বঙ্গবন্ধুকে সাহসী দিক নির্দেশনা দিয়েছিলেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা। তাই কোনদিনই বঙ্গমাতার অবদানের কথা জাতি ভুলবেনা। দৌলতপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব-এঁর ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি বাদশাহ্ এসব কথা বলেন। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টায় দৌলতপুর উপজেলা পরিষদ কনফারেন্স রুমে সক্ষিপ্ত আলোচনা সভা শেষে অস্বচ্ছল নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। ‘বঙ্গমাতা ত্যাগ ও সুন্দরের সাহসী প্রতীক’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এঁর জন্মবার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. আ. কা. ম. সরওয়ার জাহান বাদশা। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. আজগর আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন। দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকতার কার্যালয়ের আয়োজনে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জন্মবার্ষিকীর আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ, সোনালী খাতুন আলেয়া, দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. ছাদিকুজ্জামান খান সুমন, দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. তৌহিদুল ইসলাম তুহিন, ডা. আবু সাঈদ, দৌলতপুর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আব্দুল হান্নান, দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউল ইসলাম মহি, দৌলতপুর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সরদার আতিয়ার রহমান আতিক, দৌলতপুর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদেরসহ উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত সুধীজন। শেষে  ৬জন অস্বচ্ছল নারীর হাতে সেলাই মেশিন তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

আরো খবর...