ফাতির আলোয় উজ্জ্বল বার্সা, সুয়ারেসের জোড়া গোল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বল পায়ে মুগ্ধতা ছড়ালেন আনসু ফাতি। গোল করলেন ও করালেন। জ্বলে উঠলেন আরেক তরুণ ফ্রেংকি ডি ইয়ং। আর একক নৈপুণ্যে দারুণ দুই গোলে মাঠে ফেরাটা রাঙালেন লুইস সুয়ারেস। ম্যাচ জুড়ে দাপুটে ফুটবলে ভালেন্সিয়াকে উড়িয়ে জয়ে ফিরল বার্সেলোনা। কাম্প নউয়ে শনিবার রাতে লা লিগার ম্যাচটি ৫-২ গোলে জিতেছে এরনেস্তো ভালভেরদের দল। চ্যাম্পিয়নদের আরেক গোলদাতা জেরার্দ পিকে। চার ম্যাচে বার্সেলোনার এটি দ্বিতীয় জয়। আথলেতিক বিলবাওয়ের কাছে হেরে লিগ শুরু করা দলটি দ্বিতীয় রাউন্ডে রিয়াল বেতিসকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল। পরের ম্যাচে আবার ওসাসুনার মাঠে শেষ মুহূর্তে গোল খেয়ে ২-২ ড্র করে ফিরেছিল। আগের ম্যাচেই লা লিগায় বার্সেলোনার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গোল করা ফাতি ভালেন্সিয়ার জালে দ্বিতীয় মিনিটেই বল পাঠান। ডি ইয়ংয়ের ডান দিক থেকে বাড়ানো বল পেনাল্টি স্পটের কাছে পেয়ে জোরালো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তরুণ ফরোয়ার্ড। পাঁচ মিনিট পর এই দুজনের জুটিতেই ব্যবধান দ্বিগুণ করে বার্সেলোনা। এবার একজনকে কাটিয়ে সামনে এগিয়ে বাইলাইন থেকে কাটব্যাক করেন ফাতি আর ছুটে এসে প্রথম ছোঁয়ায় জোরালো শটে বল ঠিকানায় পাঠান ডি ইয়ং। গত সপ্তাহে ইউরো বাছাইয়ে জার্মানির বিপক্ষে দলের জয়ে একটি গোল করেছিলেন নেদারল্যান্ডসের এই মিডফিল্ডার। একবিংশ শতাব্দীতে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগার কোনো ম্যাচে গোল করলেন ও করালেন ফাতি (১৬ বছর ৩১৮ দিন)। প্রথমার্ধ জুড়ে বারবার প্রতিপক্ষের রক্ষণে ভীতি ছড়ানো ফাতি ষোড়শ মিনিটে পেতে পারতেন আরেকটি গোল। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে তার জোরালো বাঁকানো শটটি ক্রসবারের কোণা ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। ম্যাচের শুরু থেকে নিজেদের ঘর সামলাতে ব্যস্ত সময় কাটানো ভালেন্সিয়া ২৭তম মিনিটে পায় লড়াইয়ে ফেরা গোলের দেখা। অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে রদ্রিগোর দারুণ পাস ধরে কোনাকুনি শটে গোলটি করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড কেভিন গামেইরো। বল পোস্টে লেগে ভিতরে ঢোকে। দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে প্রতিপক্ষের ভুলের সুযোগে ব্যবধান বাড়ায় বার্সেলোনা। অঁতোয়ান গ্রিজমানের শট ঠেকাতে গিয়ে গুলিয়ে ফেলেন গোলরক্ষক ইয়াসপের সিলেসেন। বল পোস্টে লেগে ফিরে আসলে ছুটে গিয়ে জালে ঠেলে দেন পিকে। চোটের জন্য এই ম্যাচেও খেলা হয়নি বার্সেলোনার সেরা তারকা লিওনেল মেসির। ফাতির জায়গায় ৬১তম মিনিটে মাঠে নামেন চোট কাটিয়ে ফেরা সুয়ারেস। বদলি নেমে প্রথম মিনিটেই দারুণ এক গোলের দেখা পান উরুগুয়ের স্ট্রাইকার। আর্থারের পাস ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে জায়গায় দাঁড়িয়ে গোলের দিকে না তাকিয়ে শট নেন তিনি, বল পোস্টের নিচের দিকে জালে জড়ায়। ৪-১ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পর আর ভাবতে হয়নি শিরোপাধারীদের। ৮২তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলে সব অনিশ্চয়তার ইতি টানেন সুয়ারেস। গ্রিজমানের ছোট পাস ডি-বক্সে পেয়েই প্রথম ছোঁয়ায় জোরালো শটে কাছের পোস্ট দিয়ে বল লক্ষ্যে পাঠান অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ড। যোগ করা সময়ে ভালেন্সিয়ার দ্বিতীয় গোলটি করেন মাক্সি গোমেস। সেল্তা ভিগো থেকে এ মৌসুমেই আসা উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকারের নতুন ঠিকানায় এটি প্রথম গোল। চার ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। শীর্ষে থাকা আতলেতিকো মাদ্রিদ টানা তিন জয়ের পর রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে ২-০ গোলে হেরে গেছে। তাদের পয়েন্ট ৯। দিনের আরেক ম্যাচে করিম বেনজেমার জোড়া গোলে লেভান্তেকে ৩-২ ব্যবধানে হারানো রিয়াল মাদ্রিদ ৮ পয়েন্ট নিয়ে আছে দুই নম্বরে। তৃতীয় স্থানে থাকা আথলেতিক বিলবাওয়ের পয়েন্টও ৮।

 

আরো খবর...