প্রমাণিত হলে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চ দুর্ঘটনায় হত্যা মামলা হবে – নৌপ্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা অফিস ॥ রাজধানীর শ্যামবাজার সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চ মর্নিং বার্ড দুর্ঘটনায় ৩৪ জনের মারা যাওয়ার বিষয়টি হত্যাকান্ড হিসেবে প্রমাণিত হলে এ-সংক্রান্ত অবহেলাজনিত মামলাটি ‘হত্যা মামলা’ (ফৌজদারি কার্যবিধির ৩০২ ধারা) হিসেবে বিবেচিত হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। লঞ্চডুবির ঘটনায় নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান। গত ২৯ জুন সকালে ঢাকা-চাঁদপুর রুটের ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চের ধাক্কায় ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ রুটের মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। পরে ৩৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। কমিটির প্রধান নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (উন্নয়ন ও পিপিপি সেল) মো. রফিকুল ইসলাম খান। কমিটিকে আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়। কমিটিকে দুর্ঘটনার কারণ উদঘাটন, দুর্ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তি/সংস্থাকে শনাক্তকরণ এবং দুর্ঘটনা প্রতিরোধে করণীয় উল্লেখ করে সুনির্দিষ্ট সুপারিশ দিতে বলা হয়। কমিটি গত সোমবার রাতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। প্রতিবেদনে ২০টি সুপারিশ করা হয়েছে। তবে তদন্ত প্রতিবেদনে দুর্ঘটনার কী কারণ চিহ্নিত করা হয়েছে এবং কাদেরকে দায়ী করা হয়েছে, সেই বিষয়ে কিছু জানাননি প্রতিমন্ত্রী।

আরো খবর...