প্রতীতি বিদ্যালয় কুষ্টিয়ার শিক্ষা কার্যক্রমে অনন্য অবদান রেখে যাচ্ছে

প্রতীতি বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনায় আতা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের  সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা বলেছেন, প্রতীতি বিদ্যালয় কুষ্টিয়ার শিক্ষা কার্যক্রমে অনন্য অবদান রেখে যাচ্ছে, তাদের এই চলার পথে কুষ্টিয়ার সর্বস্তরের মানুষের সাথে আমার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। তিনি শনিবার দুপুরে  প্রতীতি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। প্রতীতি বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডঃ ইকবাল হোছাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ এবং ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফ উল হক মুরাদ, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মীর রেজাউল ইসলাম বাবু ও কুষ্টিয়ার চেম্বারের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল আলম মারুফ।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক জাহানারা পারভিন রুমা ও সাবেক শিক্ষক ইমারত হোসাইন মিনুর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রিন্সিপাল নজরুল ইসলাম।  শিক্ষকদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন ভাইস প্রিন্সিপাল আনিসুর রহমান, সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল জলিল, সাবেক শিক্ষক কুমারখালী সরকারী কলেজের প্রভাষক রায়হানা পারভিন, বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ টেক্সটাইল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী আসিফ ইকবাল, রংপুর মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী রাহুল হোসেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফাহমিদা ফারিহা ও ইবির শিক্ষার্থী রতœা কামাল। অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি করেন ৭ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী অদিতি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আতাউর রহমান আতা বলেন, শিক্ষা জাতিকে উন্নতির শিখরে পৌছে দিতে সহায়তা করে। শিক্ষার মাধ্যমে জাতির ভাগ্য উন্নয়ন ঘটে। বর্তমান সরকার শিক্ষাকে অতীব গুরুত্ব দিয়ে এগিয়ে নিতে অগ্রনী ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, কুষ্টিয়ার শিক্ষা কার্যক্রমকে ত্বরাম্বিত করে প্রতীতি বিদ্যালয় অগ্রসর ভুমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। বেসরকারীভাবে প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়টি জেলার মানুষের অন্তরে প্রবেশ করতে পেরেছে। তিনি বলেন, আমি জেনেছি এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাধারন শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষার উপর গুরুত্ব দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে যা আজকের সমাজের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। তিনি বলেন, প্রতীতি বিদ্যালয়ের যাত্রা পথে আমি তাদের সাথে রয়েছি তাদের যেকোন বিষয়ে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। তিনি আরো বলেন, আজ সময় এসেছে অভিভাবক ও সচেতন নাগরিকদের ভাবার যে আপনাদের সন্তানদের উপযুক্ত শিক্ষার ভাল পরিবেশে পাঠদানের ব্যবস্থা করা। তিনি বলেন,  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষার প্রতি জোর দিয়েছেন। তিনি দেশের শিক্ষা কার্যক্রমকে যুগপোযোগী করে গড়ে তুলতে নানামুখি কার্যক্রম হাতে নিয়ে সফলতা দেখিয়েছন।  পরে প্রধান অতিথি সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেষ্ট তুলে দেন। কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা উপলক্ষে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ‘শেকড়’ নামের একটি স্মরণিকা প্রকাশিত হয়েছে। অনুষ্ঠান শেষে ‘ শেকড়’ স্মরণিকার মোড়ক উম্মোচন করা হয়।

আরো খবর...