প্রকাশিত সংবাদে তালবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিবৃতি

কুষ্টিয়া হতে প্রকাশিত দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকায় গত ২৯ জুন ২০২০ইং তারিখে প্রথম পৃষ্ঠায় “অনিয়ম-দুর্নীতির কারখানা তালবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ, ভাতা কার্ডের ৬০ হাজার টাকা সচিব ও চেয়ারম্যানের পকেটে” প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদে উলে¬খিত কোন ঘটনা সত্য নয়, বানোয়াটে এবং অনৈতিক দাবী আদায়ে ব্যর্থ গুটি কয়েক মেম্বরের দেয়া মনগড়া বিভ্রান্তকর তথ্য। আমাকে সমাজে ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে। এতে করে শুধুমাত্র আমার নয় মিরপুর উপজেলার সেরা ইউনিয়নখ্যাত তালবাড়ীয়াকেও হেয় করা হয়েছে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় বিধবা, বয়স্ক ও প্রতিবন্ধীদের কাছ থেকে ব্যাংক একাউন্টের নামে তিনশত টাকা করে ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার কথা উলে¬খ করা হয়েছে তা শুধুমাত্র বিভ্রান্তকর ছাড়া আর কিছুই না। কোন ভুয়া তালিকা ও নিজের লোক অন্তভূক্ত করা হয়নি। সংবাদে যেসব মেম্বরের বক্তব্য প্রকাশ হয়েছে তারাই এধরনের কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। সচিব ও আমি জড়িত নয়, এমনকি এসব ঘটনা আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন কোনদিনই ঘটেনি। আমি ইউনিয়নের দুস্থ, অসুস্থ ও হতদরিদ্র মানুষের কন্যা দায় এবং বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য নিয়মিতভাবে আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে অনুদান ও সাহায্য সহযোগিতা দিয়ে আসছি। করোনার শুরু থেকে অদ্যাবধি পর্যন্ত হতদরিদ্র ও কর্মহীন ১৪শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদে ১ হাজার পরিবারের মাঝে আমি ব্যক্তিগতভাবে বস্ত্র বিতরণ করেছি।  এ কারণে সংবাদে উলে¬খিত টাকা আত্মসাতের বিষয়টি স¤পূর্ণ ভিত্তিহীন ও অপ্রাসাঙ্গিক। নিয়মিতভাবেই মেম্বররা তাদের সম্মানী ভাতা পেয়ে আসছেন। ইউনিয়নের কোন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড এবং সাহায্য সহযোগিতা প্রদান মেম্বরদের সিদ্ধান্ত ছাড়া কোন দিনই হয়নি। কেউ কেউ তাদের অনৈতিক দাবী আদায় না করতে পরে সাংবাদিকদের কাছে আমার বিরুদ্ধাচারণ ও মিথ্যা তথ্য প্রদান করেছে। আমি প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

মোঃ হান্নান মন্ডল

চেয়ারম্যান

৩নং তালবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ

মিরপুর, কুষ্টিয়া।

আরো খবর...