পেঁয়াজ অস্থিরতায় ‘ফরাসি বিপ্লবের প্রাক্কাল’ দেখছেন রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি ঘিরে সরকারের পক্ষ থেকে যেসব কথা-বার্তা বলা হচ্ছে, তাকে ফরাসি বিপ্লবের সূচনালগ্নে রাজ পরিবারের বক্তব্যের সাথে তুলনা করেছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। গতকাল রোববার দুপুরে নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রিজভী বলেন, “আমরা মনে করি, পেঁয়াজ সংকট সৃষ্টির জন্য এই সরকারের অদক্ষতা, অযোগ্যতা, অর্বাচীন, অবহেলা যা অষ্টাদেশ শতাব্দীতে ফরাসি বিপ্লবের প্রাক্কালে ফ্রান্সের রানীর মতোই কান্ডজ্ঞানহীন কথা-বার্তার মতোই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কথা বলছেন।” বিদ্যমান সংকট সমাধানে বিমানে করে পেঁয়াজ আনার যে ঘোষণা সরকার দিয়েছে, তার কার্যকারিতা কী হবে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, “গতকাল প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বিমানে উঠে গেছে পেঁয়াজ। আর কোনো চিন্তা নেই। অথচ আজকের পত্রিকায় রিপোর্ট বেরিয়েছে, গত দেড় মাসে বিমানে করে পেঁয়াজ এসেছে মাত্র ১৬০০ কেজি অর্থাৎ দেড় টনের মতো। “আর তিনি কী ঢাকঢোল পিটিয়ে ঘটা করে বলেছেন যে, প্লেনে উঠে গেছে পেঁয়াজ। মনে হচ্ছে যে, একটা বিশাল ঘটনা। অথচ দেড় মাসে এসেছে মাত্র দেড় টন পেঁয়াজ।” রিজভী বলেন, “জনগণ জানতে চায়, মাসের পর মাস সময় পেয়েও কেন পেঁয়াজ সংকটের সমাধান করা হল না? মানুষের জীবনের সঙ্গে জড়িত এমন একটি উপাদান নিয়ে দিনের পর দিন শেখ হাসিনা কেন জনগণের সঙ্গে এমন নির্মম রসিকতা করে চলছেন-এটা আজ সকলের প্রশ্ন।” পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সোমবার ঢাকাসহ সারা দেশে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে বিএনপি। ঢাকায় হবে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সকাল ১০টায়। রিজভী অভিযোগ করেন, কারসাজি করে পেঁয়াজের সঙ্গে চালের দামও  পাল্লা দিয়ে বাড়ানো হচ্ছে। তিনি বলেন, “সরকারের প্রচ্ছন্ন ছত্রছায়ায় সিন্ডিকেটের নজর এখন চালের বাজারেও। পেঁয়াজের মতোই চালও জনগণকে বাড়তি দামে কিনতে হচ্ছে। যে যেভাবে পারছে সাধারণ মানুষের টাকা লুটে নিচ্ছে। “গত কয়েক দিনে চালের দাম কেজিতে ৪ থেকে ৬ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। দাম নিয়ন্ত্রণে সরকারের কোনো সংস্থার দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেই। বাজারে সরকারের কোনো নজরদারি নেই।”

‘সিন্ডিকেটের’ কারণে বাজারে মূল্য বৃদ্ধি হচ্ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, “সরকার বলছে, সারা দেশে চালের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। চালের আমদানিও গত বছরের এই সময়ের তুলনায় বেশি। পাইকারি ও খুচরা বাজারেও সরবরাহ স্বাভাবিক। কোথাও চালের কোনো ঘাটতি বা সংকট নেই। তারপরও চালের দাম বাড়ছে। “কারণ পেঁয়াজ কেলেঙ্কারিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে সরকার কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় চালের মজুতদাররা সরকারের কতিপয় এমপি-মন্ত্রী-ব্যবসায়ীর মদদে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।” সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, কেন্দ্র্রীয় নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, মীর সরফত আলী সপু, আজিজুল বারী হেলাল, আবদুস সালাম আজাদ, কাজী আবুল বাশার, রফিক হাওলাদার, আহসান উদ্দিন শিপন, শেখ আবদুল হালিম খোকন, আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরো খবর...