পুলিশের সেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ায় হবে আমাদের লক্ষ্য

কুষ্টিয়ায় জেলা পুলিশের বিট পুলিশিং কর্মশালায় এসপি তানভীর আরাফাত

রেজা আহম্মেদ জয় ॥ পুলিশি সেবাকে তৃণমূল পর্যায়ে বিস্তৃত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ পুলিশ ‘‘বিট পুলিশিং’’ কার্যক্রমের উদ্যোগ গ্রহন করেন তারই অংশ হিসেবে কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের আয়োজনে বিট পুলিশিং কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন্স মুক্তমঞ্চে এই বিট পুলিশিং কর্মশালার বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত।

কর্মশালায় বিটে পুলিশিং এর দায়িত্ব পালন বিষয়ে পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত বলেন- প্রতিটি বিটে একজন সাব-ইন্সপেক্টর বিট অফিসার হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন এবং প্রত্যেকটি বিটে একজন করে এএসআই সহকারী বিট অফিসার ও বিটে সহযোগি হিসেবে ২জন কনস্টেবল দায়িত্ব পালন করবেন।

এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুষ্টিয়া সদর সার্কেল) মোঃ আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস.এম.আল-বেরুনীসহ সকল থানার অফিসারবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত আরও বলেন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ইউপি চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর, জনপ্রতিনিধি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে সমস্যা সমাধানে উদ্যোগ গ্রহন করবে। বিট অফিসারেরা গুরুতর অপরাধ, বিশেষ করে খুন, ডাকাতি, দস্যুতা, ধর্ষন ইত্যাদি বিষয়ে সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পৌছে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবে। যে কোন সাধারণ মানুষ এই সেবা থেকে বঞ্চিত হলে দ্রুত থানায় জানাবে এবং থানার কর্মকর্তা তার সেবা নিশ্চিত করবে।

পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত আরো বলেন- পুলিশের সেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ায় হবে আমাদের লক্ষ্য। বিট কর্মকর্তারা নিয়মিতভাবে তাদের নির্দিষ্ট বিট এলাকায় গমন করবেন এবং সেবা প্রত্যাশীদের বক্তব্য শ্রবণ পূর্বক প্রয়োজনীয় পুলিশী ও আইনগত সেবা প্রদান করবেন। স্থানীয়ভাবে বা এলাকায় আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটতে পারে সেই সকল বিষয়ের ক্ষেত্রে প্রতিরোধ ও প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট থানা (তদন্ত কেন্দ্র, ফাঁড়ি, স্থায়ী ক্যাম্পসহ) থেকেই উক্ত কর্মকর্তাদেরকে নিয়োগ দিতে হবে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তার অধিভুক্ত বা আওতাধিন এলাকার বিটগুলোতে বিট অফিসার, সহকারী বিট অফিসারদের মোতায়েন ও দায়িত্ব বন্টন করবে।

কর্মশালায় বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে পুলিশের সেবাকে জনগণের নিকট পৌঁছে দেওয়া, সেবার কার্যক্রমকে গতিশীল ও কার্যকর করা এবং পুলিশের সাথে জনগণের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে প্রতিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড ভিত্তিক এক বা একাধিক ইউনিটে ভাগ করে পরিচালিত করার কার্যক্রম পুলিশ সদস্যদের মাঝে উপস্থাপন করা হয়। বিট পুলিশের ৮৫টি মোবাইল নং থাকবে, যা আগামী ১ অক্টোবর থেকে প্রতিটি সিম চালু হবে।

বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে সফল করার জন্য সকল শ্রেণী- পেশার মানুষের প্রতি কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের পক্ষ হতে আহবান “তথ্য দিন, সেবা নিন”।

আরো খবর...