‘নিরাপদ থাকো, সতর্ক থাকো’, ক্রিকেটারদের প্রতি ডমিঙ্গোর বার্তা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ সব ঠিকঠাক থাকলে ছুটি কাটিয়ে দু-একদিনের মধ্যে বাংলাদেশে ফেরার কথা ছিল রাসেল ডমিঙ্গোর। কিন্তু অপ্রত্যাশিতভাবে বেড়ে গেছে সেই ছুটি। দেশে সব ধরনের ক্রিকেট বন্ধ, কোচের করার আর কী থাকবে! বাড়তি এই ছুটিতে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন ডমিঙ্গো। ক্রিকেটারদের প্রতি বাংলাদেশ কোচের বার্তা, ‘নিরাপদ থাকো, সতর্ক থাকো।’ করোনাভাইরাসের বিস্তার এড়াতে স্থগিত করা হয়েছে দেশের সব ধরনের ক্রিকেট। জিম্বাবুয়ে সিরিজের পর ছুটিতে যাওয়া জাতীয় দলের কোচিং স্টাফের সবার অবসর তাই দীর্ঘায়িত হয়েছে আরও। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে শুক্র ও শনিবারের মধ্যে চলে আসার কথা ছিল সবার। কিন্তু বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা কমিটির প্রধান আকরাম খান জানালেন, কোচদের সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আপাতত ফেরার প্রয়োজন নেই। অবস্থা বুঝে সবাইকে জানানো হবে কখন ফিরতে হবে বাংলাদেশে। বিসিবির হেড অব ফিজিক্যাল পারফরম্যান্স পদে কদিন আগে নিয়োগ পাওয়া নিক লি যোগ দিয়েছিলেন কাজে। কিন্তু সাবেক এই ইংলিশ ক্রিকেটারও ফিরে গেছেন দেশে। যে পরিস্থিতিতে এই ছুটি, সেটি চাননি ডমিঙ্গো। তবে পেশাদারী ব্যস্ততার কারণে পরিবার থেকে অনেকটা সময় দূরে থাকতে হয় তাদের। বাংলাদেশের প্রধান কোচ জানালেন, বাড়তি ছুটি কাজে লাগাচ্ছেন পারিবারিক সময় কাটিয়ে। “এভাবে ছুটি কাম্য নয় কখনোই। তবে বাস্তবতা মানতেই হবে। পুরো সময় পরিবারের সঙ্গে কাটাচ্ছি। আশা করছি, বিশ্বজুড়ে এই দুর্যোগ দ্রুত কেটে যাবে।” জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষ হওয়ার পর গত রোববার থেকে শুরু হয়েছিল ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। কিন্তু পরিস্থিতি গুরুতর হতে থাকায় লিগ তো বটেই, স্থগিত করা হয়েছে সব ধরনের ক্রিকেট। এই অবসর সময়ে ক্রিকেটারদের জন্য ছোট্ট বার্তা দিয়েছেন কোচ। “বিসিবি সঠিক সিদ্ধান্তই নিয়েছে (খেলা স্থগিত করে)। ক্রিকেটারদের বলব, সবার আগে হলো নিরাপত্তা। ঘরে থাকো, সতর্ক থাকো, নিরাপদ থাকো। সরকারী নির্দেশনা যা আছে, চিকিৎসকেরা যা বলছেন, সব মেনে চলো।”

আরো খবর...