নিরপেক্ষ দায়িত্ব পালনে সর্বদা প্রস্তুত থাকতে হবে

দুর্গোৎসবের পুজামন্ডব পাহারায় আনসার ভিডিপি

নিজ সংবাদ ॥ বাঙালি সংস্কৃতির সনাতনী ধর্মাম্বলী মানুষের সর্ববৃহৎ উৎসবই হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব। এই পরমপরার বাঙালি চেতনার প্রাণের উৎসবকে সুন্দর, সার্থক, সফল ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে  জেলা পুলিশের পাশাপাশি আনসার ভিডিপি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। প্রতিবারের ন্যায় এবারের দুর্গোৎসবে পুজামন্ডব অন্যান্য বারের চেয়ে অনেক বেশি এবং অধিক গুরুত্বপূর্ন। সেক্ষেত্রে জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ ও আনসার ভিডিপি সহ সংশ্লিষ্ট প্রত্যেকের দায়িত্ব এবার একটু বেশি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জেলা আনসার ভিডিপি কার্যালয় মিলনায়তনে দুর্গোৎসবের পুজামন্ডব পাহারায় আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের দায়িত্ব বন্টন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা তরফদার আলমগীর হোসেন এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, একটি পুজামন্ডবের দায়িত্ব পালনে পুলিশ সদস্য থাকে দু’চারজন। কিন্তু আনসার ভিডিপি বাহিনীর সদস্য থাকে অনেক। সুষ্ঠুভাবে দুর্গোৎসব সম্পন্ন করতে কোন রূপ বিশৃংখলা, ধ্বংসাত্বক কার্যকলাপসহ যে কোন অপরাধ দমন ও নিয়ন্ত্রণে আনতে নিরপেক্ষ দায়িত্ব পালনে নিজেকে সর্বদায় প্রস্তুত রাখবে জেলা আনসার ভিডিপি সদস্য/সদস্যাগণ। শান্তি শৃংখলা উন্নয়ন নিরাপত্তায় সর্বত্র আমরা শ্লোগানে দুর্গোৎসবের পুজামন্ডব পাহারায় আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের দায়িত্ব বন্টন অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া-মেহেরপুরের সকল উপজেলা আনসার ভিডিপি কমান্ডারগণ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি দূর্গোৎসব চলাকালীন সময়ে একজন আনসার ভিডিপি সদস্যের কি কি দায়িত্ব পালন করতে হবে আর কিকি দায়িত্ব পালনে বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিয়ে তাৎক্ষনিক সমাধান করতে হবে তার বিস্তারিত তুলে ধরেন। কোনটা ন্যায় আর কোনটা অন্যায় তা দেখিয়ে দেন এবং বুঝিয়ে দেন এবং তিনি বলেন দূর্গোৎসব চলাকালিন সময়ে কোনভাবেই জেলায় কোন বিশৃংখলা মেনে নেয়া হবেনা। মনে রাখবেন দূর্গোৎসবের পুজামন্ডবে আসা সনাতনী ধর্মের সম্মানীত দর্শনার্থী ভক্ত ও সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা বদ্ধপরিকর। এবারের দূর্গোৎসবের পুজামন্ডবের নিরাপত্তা ও পাহারায় কুষ্টিয়া জেলার ১৩২৯ জন আনসার ভিডিপির সদস্য এবং মেহেরপুর জেলার ২০৪ জন আনসার ভিডিপির সদস্য দায়িত্ব পালন

আরো খবর...