নতুন জেমস বন্ড হচ্ছেন আইরিশ অভিনেতা টম হার্ডি

বিনোদন বাজার ॥ বিশ্বজুড়ে তুমুল জনপ্রিয় চরিত্র ‘জেমস বন্ড’। সেই ১৯৬২ সাল থেকে সিনেমার রুপালি পর্দা মাতিয়ে চলেছে দুর্র্ধষ এই স্পাই। যারা গোয়েন্দা-রহস্য বা অ্যাকশন-থ্রিলার মুডের ছবি দেখতে পছন্দ করেন তাদের কাছে জেমন বন্ড সবসময়ই ‘স্পেশাল ওয়ান’। এখন পর্যন্ত এ চরিত্রে বিশ্বসেরা অনেক তারকাই অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। সর্বশেষ জেমস বন্ড হিসেবে গেল কয়েকটি কিস্তিতে বাজিমাত করে আসছেন অভিনেতা ড্যানিয়েল ক্রেগ। তবে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ‘নো টাইম টু ডাই’ ছবিটি হতে যাচ্ছে জেমস বন্ড হিসেবে তার শেষ ছবি। এ ঘোষণা বেশ অনেক আগেই দেয়া হয়েছে ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে। তারপর থেকেই চলছে জল্পনা কল্পনা কে হবেন নতুন বন্ড? অবশেষে আয়ারল্যান্ডের ‘দ্য ভ্যালকন’ থেকে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, ড্যানিয়েল ক্রেগের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন আইরিশ অভিনেতা টম হার্ডি। চলতি বছরের জুন মাসে অডিশন দিয়ে পাশ নম্বর পেয়েছেন এভিনেতা। অডিশনে হার্ডির অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ধারণা করা হচ্ছিল মারফিকে। তবে সবাইকে পেছনে ফেলে বন্ড ‘এজেন্ট ০০৭’ চরিত্রে দ্বিতীয় কোনো আইরিশ হিসেবে নাম লেখালেন তিনি। ধীরে ধীরে ছবিটির ব্যাপারে বিস্তারিত ঘোষণা আসবে। ১৯৭৭ সালে জন্ম নেয়া অভিনেতা টম হার্ডি অভিনয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন ২০০০ সালের দিকে। একই সময়ে তিনি টেলিভিশন ও সিনেমায় ব্যস্ত হয়ে উঠেন। তবে মডেল হিসেবে শোবিজে তার যাত্রা শুরু সেই ১৯৯৮ সালেই। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে হার্ডি খ্যাতি পেয়েছেন মার্ভেল কমিকসের ‘ভেনম’ চরিত্রে। প্রসঙ্গত, জেমস বন্ড হচ্ছে বিখ্যাত ঔপন্যাসিক ইয়ান ফ্লেমিং কর্তৃক সৃষ্ট উপন্যাসের কাল্পনিক চরিত্র। এই পর্যন্ত এই চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে শন কনারি, জর্জ ল্যাজেনবি, রজার মুরে, টিমোথি ডাল্টন, পিয়ার্স ব্রুসনান এবং ড্যানিয়েল ক্রেইগকে। সম্প্রতি রেডিও টাইমসের একটি জরিপে সেরা জেমস বন্ড হিসেবে শীর্ষে উঠে এসেছে ৮৯ বছর বয়সী শন কনারির নাম। টাইমসের এই পুলে প্রথম রাউন্ডে ৫৬ এবং শেষ রাউন্ডে ৪৪ শতাংশ ভোট নিয়ে প্রথম অবস্থান দখল করেন তিনি।

 

 

আরো খবর...