দৌলতপুর কলেজে ঈদে মিলাদুন্নবী ও কলেজের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ দৌলতপুর কলেজে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী ও কলেজের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে রবিবার বেলা ১১টায় দৌলতপুর কলেজের লালন শাহ্ ভবন মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও বিশেষ দোয়া মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত হয়। দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. ছাদিকুজ্জামান খান-এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. আজিজুল হক, রসায়ন বিভাগের প্রধান মো. নওয়াব আলী, অর্থনীতি বিভাগের প্রধান মো. শামসুর রহমান, বাংলা বিভাগের প্রধান মো. ওহিদুল ইসলাম, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সরকার আমিরুল ইসলাম, ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাজেদা খাতুন, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও শিক্ষক প্রতিনিধি লুৎফুন নাহার ছাবিনা ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ও শিক্ষক প্রতিনিধি মো. নুরুল ইসলাম। সভাপতির বক্তব্যে দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ মো. ছাদিকুজ্জামান খান দৌলতপুর কলেজ প্রতিষ্ঠাকালীন যে সকল শিক্ষকবৃন্দ আছেন তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এবং দৌলতপুর কলেজ প্রতিষ্ঠার পেছনে যাদের অবদান আছে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বলেন, দৌলতপুর কলেজ একটি মহিমান্বিত দিনে অর্থাৎ ১৯৮৫ সালের ১২ রবিউল আউয়াল তারিখে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। অনেক প্রতিকুল পরিবেশ মোকাবেলা করে দৌলতপুর কলেজ আজ খুলনা বিভাগের একমাত্র এবং দেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ মডেল কলেজে রূপান্তর হয়েছে। এর পেছনে আপনারা যারা দৌলতপুর কলেজে শিক্ষকতা করছেন তাদের অবদানের পাশাপাশি আমার আন্তরিক চেষ্টায় সফলতার উচ্চ শিখরে উঠতে সক্ষম হয়েছে। তিনি দৌলতপুর কলেজকে সামনের দিকে আরও এগিয়ে নেওয়ার জন্য শিক্ষকদের আন্তরিক সহযোগিতা এবং দৌলতপুর কলেজের প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতাদের আত্মার শান্তি কামনা করেন। আলোচনা অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রভাষক শরীফুল ইসলাম। শেষে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন দৌলতপুর কলেজ মসজিদের ঈমাম মাও. মো. মনিরুল ইসলাম। আলোচনা ও দোয়া মাহ্ফিলে দৌলতপুর কলেজের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

আরো খবর...