দৌলতপুরে ৩ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু! অসুস্থ-৩

পুলিশের দাবি হৃদরোগ

বিশেষ প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ৩ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে এবং আরো ৩ জন অসুস্থ রয়েছে বলে জানাগেছে। নিহতরা হলেন, উপজেলার হোসেনাবাদ এলাকার সফের মিয়ার ছেলে খায়ের কসাই (৫৫), একই এলাকার এজবার আলীর ছেলে মফিজুল ওরফে মুক্তি (৩৪), ফিলিপনগর ইউনিয়নের বাহিরমাদি মসজিদপাড়া এলাকার চুন্নু কসাই (৪৫)। খায়ের কসাই ও চুন্নু কসাই একই সাথে মাংসের ব্যবসা করতেন। অসুস্থদের মধ্যে হোসেনাবাদ এলাকার জিল¬ু (৪৪) ও হান্নান (৪২) কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এবং লিপু নামের অপর এক যুবক অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে রয়েছেন। পুলিশ নিহতদের মধ্যে একজনের মৃত্যু নিশ্চিত করলেও সে হৃদরোগে মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন। স্থানীয় বিভিন্ন সুত্রে জানাগেছে, শুক্রবার রাতে দৌলতপুর উপজেলার হোসেনাবাদ বাজারের রাসেল ফার্মেসী থেকে ৭ জন স্পিরিট বা এ্যালকোহল কিনে পান করেন। পরে এদের মধ্যে গভীর রাতে খায়ের কসাই অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যায়। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রাতেই ঢাকায় নেওয়ার পথে মফিজুল ওরফে মুক্তি মারা যান। গতকাল ভোরে নিজ বাড়িতে মারা যান বাহিরমাদি মসজিদপাড়ার চুন্নু কসাই। কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হান্নানের চাচা ময়েন উদ্দিন জানান, চিকিৎসাধীন দুজনই চোখে ঝাপসা দেখছেন। এদের অবস্থা ভাল নয় বলে তিনি জানিয়েছেন। মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের দফাদার নাসির উদ্দিন জানান, শুক্রবার দিবাগত রাতে স্পিরিট খেয়ে অসুস্থ হলে কুষ্টিয়ায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে খায়ের কসাই মারা যায়। আর ঢাকায় মারা গেছে মফিজুল ওরফে মুক্তি। এ ঘটনার পর থেকেই রাসেল ফার্মেসী বন্ধ করে মালিক রাসেল পালিয়ে গেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। তবে রাসেল ফার্মেসীর পিছন থেকে শতাধিক স্পিরিটের বোতল উদ্ধার করেছে দৌলতপুর থানা পুলিশ। দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সের কর্তব্যরত চিকিসক ডা. সবুজ জানান, অ্যালকোহোল পান করে একজন দৌলতপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তিনি আজকে ভর্তি হয়েছেন। তবে গতকাল অসুস্থ হয়ে কে কে এসেছিলেন তা জানাতে পারেননি তিনি। দৌলতপুর থানার ওসি এস এম আরিফুর রহমান গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে জানান, আমরা খবর পেয়ে খায়ের কসাইয়ের বাড়িতে যায়। তার পরিবার হৃদরোগে মারা যাবার সনদ দেখিয়েছেন। নিহত অন্যদেরও খোঁজ নেয়া হচ্ছে।

আরো খবর...