দৌলতপুরে সেনাবাহিনীর টহল শুরু; পথচারীদের অর্থদন্ড

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সেনাবাহিনীর টহল শুরু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর সদস্যরা দৌলতপুরের বিভিন্ন এলাকায় টহল দিয়েছেন। তবে সেনা সদস্যদের টহল শুরু হওয়ার পূর্ব থেকেই দৌলতপুরের বিভিন্ন জনসমাগম এলাকা হাট-বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রায় জনশুন্য অবস্থায় রয়েছে। জরুরী ওষুধের দোকান ছাড়া দৌলতপুরের প্রায় সব দোকান বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন ও দৌলতপুর করোনা মনিটরিং কমিটির ব্যাপক তৎপরতায় দৌলতপুরের সাধারণ মানুষকে ঘরের বাইরে দেখা যাচ্ছে না। সেই সাথে ‘করোনা ভাইরাস’’ বিস্তার রোধে বৃহস্পতিবার থেকে সরকারী ছুটি ঘোষনা হওয়ার পর দৌলতপুরের মানুষকে ঘর থেকে বাইরে বের হতেও দেখা যায়নি। এরমধ্যেও গতকাল শুক্রবার দুপুরে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শারমিন আক্তার ৩জন পথচারীকে সরকারী আদেশ অমান্য করায় নিরাপদ সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ এর ১২/৭০ ধারায় জনপ্রতি দুই হাজার টাকা করে ৬হাজার টাকা অর্থদন্ড করেছেন এবং সরকারী আদেশ অমান্য করে দোকান খোলার অপরাধে ১৮৬০ সালের দ: বি: ২৬৯ ধারায় এক গার্মেন্ট্স ব্যবসায়ীর দুই হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন। এছাড়াও দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. আজগর আলী গতকাল বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত উজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে সরকারী আদেশ অমান্য করায় অপরাধে ২৯১ ধারায় একজনের ১০হাজার টাকা এবং দুই জনের ৫ হাজার টাকা করে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার জানান, করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে  দৌরতপুর উপজেলা প্রশাসনের অভিযান ও জনসচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যাপক তৎপর রয়েছে। এখন পর্যন্ত দৌলতপুরের সার্বিক পরিস্থিতি ভাল অবস্থায় রয়েছে। আজও সেনা সদস্যদের নিয়ে অভিযান ও টহল অব্যাহত থাকবে।

আরো খবর...