দৌলতপুরে বিসর্জনের মধ্যদিয়ে শেষ হলো শারদীয় দুর্গোৎসব

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ শারদীয় দুর্গোৎসবের গতকাল ছিল শেষ দিন। নানা আচারের মধ্যদিয়ে সোমবার মহানবমী পালিত হয়। আর প্রতিমা বিষর্জনের মধ্যদিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সমাপ্তি ঘটেছে সনাতন ধর্মালম্বীদের সর্ববৃহৎ এই ধর্মীয় উৎসব। তাই গতকাল সকাল থেকে সব মন্দিরে ছিল বিষাদের সুর। কারন বিজয় দশমীর দিনে বিষর্জনের মধ্য দিয়ে মর্ত্য ছেড়ে কৈলাসে স্বামী গৃহে ফিরে যান দূর্গতিনাশিনী মা দূর্গা। পেছনে ফেলে যান ভক্তদের পাঁচ দিনের আনন্দ-উল্লাস আর বিজয়ার আনন্দ অশ্র“। এদিকে দশমীতে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের ১৩টি মরিন্দরে অনুষ্ঠিত দূর্গার শান্তিপূর্ণ বিষর্জন হয়েছে। যদিও বৈরী আবহাওয়া ছিল বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত। বৃষ্টি উপেক্ষা করে ভক্ত ও দর্শনার্থীর পাশাপাশি আয়োজকরা মা দূর্গাকে বিষর্জন দেয়। পঞ্জিকামতে জগতের মঙ্গলকামনায় দেবী দূর্গা এবার ঘোটকে অর্থাৎ ঘোড়ায় চড়ে মর্ত্যালোকে এসেছিলেন। গতকাল স্বর্গালোকে ফিরে যান ঘোটকে চড়েই। দৌলতপুর উপজেলার হিসনা নদী, পদ্মা নদী, মাথাভাঙ্গা নদীসহ বিভিন্ন নদী ও জলাশয়ে ভক্তবৃন্দ আনন্দ উল্লাস ও অশ্র“সজল নয়নে মা’কে বিদায় জানায়। এদিকে শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষ্যে দৌলতপুরের প্রতিটি পূজা মন্ডপকে সাজানো হয়েছে আকর্ষনীয় করে। দূর্গা পূজাকে শান্তিপূর্ন ও নির্বিঘœ করতে প্রতিটি মন্ডপে আইনশৃংখলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছিল।

আরো খবর...