দৌলতপুরে তাছের পীরের বাহিনী আগুন দিল অভিযোগকারীর বাড়ীতে ; ৩টি ঘর পুড়ে ভস্মিভূত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার চরদিয়ার পূর্বপাড়া এলাকার কথিত পীর তাছেরের বিরুদ্ধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের খাল দখলের অভিযোগ উঠেছিল। গত ২৯ মার্চ জাতীয় দৈনিকে “দৌলতপুরে কথিত ভন্ড পীর তাছেরের বিরুদ্ধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের খাল দখলের অভিযোগ” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় কথিত তাছের পীরের বাহিনী গত ৩০ মার্চ রাত সাড়ে ৮টার দিকে আস্তানা সংলগ্ন অভিযোগকারী করিম খানের বাড়ীতে আগুন ধরিয়ে দিলে ৩টি ঘর পুড়ে ভস্মিভূত হয় । এতে অভিযোগকারীর অপূরণীয় ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এ বিষয়ে অভিযোগকারী করিম খান সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন যাবত পীরের লোকজন নানাভাবে আমাদের এখান থেকে বাড়ী উচ্ছেদের জন্য ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে। গত ২৭ মার্চ ভেকু দিয়ে হিসনা নদী থেকে মাটি উত্তোলন করে নদীর পাড় বাধতে থাকলে উপজলো প্রশাসনকে জানানো হয়। উপজেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোন অনুমতি ছাড়া অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করছে দেখে তাৎক্ষনিক মাটি কাটা বন্ধ করে দেয়।  এ ঘটনার জের ধরে গত ৩০ মার্চ রাত সাড়ে ৮টার সময় তাছের পীরের বাহিনী উপজেলার বাগোয়ান এলাকার শুকুরের ছেলে সুজন, চরদিয়াড় গ্রামের সাজানের ছেলে শামীম, তাজপুর এলাকার কামাল ও আমদহ এলাকার ছালাম আমার বসত বাড়েিত আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। তিনি আরো বলেন-দরবার শরীফের আশপাশের যে জমি পীরের লোকদের পছন্দ হবে সেই জমি প্রকৃত মালিকদের নানাভাবে হয়রানী নামমাত্র টাকা দিয়ে রেজিষ্ট্রি করে নেয় যার নজীরও রয়েছে অনেক।  এ বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন বাড়ী পোড়ানোর বিষয়টি শুনেছি এবং তাৎক্ষনিক আমার পুলিশ ফোর্স পাঠিয়েছিলাম। ঘটনাটি তদন্তপুর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো খবর...