দুর্গাপূজায় তিন দিন সরকারি ছুটি দাবি

ঢাকা অফিস ॥ হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজায় তিন দিনের সরকারি ছুটির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সংগঠনটি আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এই দাবি জানানো হয়। একইসঙ্গে সাভারের নাবালিকা ছাত্রী নীলা রায় হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন বাস্তবায়নের দাবিও জানিয়েছে সংগঠনটি। মানববন্ধনে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদের সভাপতি দীপংকর শিকদার দীপু বলেন, দুর্গাপূজার একদিনের সরকারি ছুটি শুধু ছুটি হিসেবেই গণ্য হয়। এই ছুটিতে আমরা পরিবারের সঙ্গে মিলিত হতে পারি না। আমাদের সবচাইতে বড় এই ধর্মীয় অনুষ্ঠানটিতে সবাই চায় একসঙ্গে পরিবারের সঙ্গে থাকতে। যা একদিনের ছুটিতে সম্ভব না। সাধারণ সম্পাদক সাজন কুমার মিশ্র বলেন, বিশ্বের অন্যান্য রাষ্ট্রের মতো সংখ্যালঘুরা যেন নিরাপদভাবে বসবাস করতে পারে সে দিকে সরকারকে দৃঢ় দৃষ্টি রাখার অনুরোধ করছি। সাভারে স্কুলছাত্রী নীলা রায়কে হত্যার প্রতিবাদ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। মিথ্যা ধর্মীয় উস্কানিমূলক মামলা দিয়ে দিয়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদারকে হয়রানি না করারও দাবি জানাই। মুখপাত্র সুমন কুমার রায় বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে বাড়িঘর, মঠ, মন্দির ভাঙচুর, শ্মশান বেদখল, দেশত্যাগে ভয়ভীতি প্রদর্শনের আইনগত ব্যবস্থা নিশ্চিতসহ বিভিন্ন স্থানে ধর্মীয় মিথ্যা মামলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের জনগোষ্ঠীকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ফাঁসিয়ে যে চলমান নির্যাতন চলছে, তা অনতিবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির উপদেষ্টা সুধীর কান্তি সাহা, সহ-সভাপতি প্রীতিভূষন ভট্টাচার্য এবং সাধারণ সম্পাদক সাজন কুমার মিত্র প্রমুখ।

আরো খবর...