দুই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের নৈপুণ্যে জিতল রিয়াল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ নিয়মিত খেলোয়াড়দের অনেকের অনুপস্থিতিতে নিজেদের মেলে ধরলেন ভিনিসিউস জুনিয়র ও রদ্রিগো। দুই তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড পেলেন জালের দেখা। তাদের নৈপুণ্যে প্রথমবারের মতো ক্লাব ব্র“জকে হারাল রিয়াল মাদ্রিদ। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বুধবার রাতে ‘এ’ গ্র“পের ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেছে জিনেদিন জিদানের দল। অন্য গোলটি করেন লুকা মদ্রিচ। বেলজিয়ান ক্লাবটির বিপক্ষে আগের তিন দেখায় একটিতে হেরেছিল রিয়াল, ড্র হয়েছিল অন্য দুটি। প্রায় দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে নামা রিয়ালকে শুরুতে নিজেদের মাঠে চেপে ধরে ব্র“জ। দুই দলের প্রথম দেখায় সান্তিয়াগো বের্নাবেউ থেকে পয়েন্ট নিয়ে ফেরা দলটি এগিয়ে যেতে পারত নবম মিনিটে। দ্বিতীয় পছন্দের কিপার আলফুঁস আরিওলা দারুণ দক্ষতায় রক্ষা করেন দলকে। খেলার ধারার বিপরীতে পঞ্চদশ মিনিটে সুযোগ আসে রিয়ালের সামনে। লুকা ইয়োভিচের চেষ্টা ঠেকিয়ে স্বাগতিকদের ত্রাতা গোলরক্ষক। আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে ওঠে ম্যাচ। গতির অভাব ছিল না কোনো দলেরই। কিন্তু জমাট রক্ষণ ভাঙার সৃজনশীলতা দেখাতে পারেনি কেউই। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে রিয়ালের জালে বল পাঠিয়েছিল ব্র“জ। কিন্তু ভিএআর দেখে গোল দেননি রেফারি। দ্বিতীয়ার্ধে রদ্রিগোর চমৎকার ফিনিশিংয়ে এগিয়ে যায় রিয়াল। আলভারো ওদ্রিওসোলার ক্রসে দারুণ ভলিতে ৫৩তম মিনিটে জাল খুঁজে নেন তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। দুই মিনিট পরেই সমতা ফেরায় ব্র“জ। সতীর্থকে বাড়ানো এদের মিলিতাওয়ের বল মাঝপথে ধরে এগিয়ে যান এমানুয়েল ডেনিস। তার কাছ থেকে বল পেয়ে বাকিটা ঠান্ডা মাথায় সারেন হান্স ভানাকেন। ৬৪তম মিনিটে আবার এগিয়ে যায় রিয়াল। এই গোলে ভাগ্যের বেশ সহায়তা আছে। ইয়োভেচির কাছ থেকে বল পেয়ে শট নিতে চেয়েছিলেন রদ্রিগো। তিনি নিয়ন্ত্রণ হারালে ক্লিয়ার করতে চেয়েছিলেন সিমোন ডেলি। তার শটে রদ্রিগোর পায়ে লেগে বল যায় অরক্ষিত ভিনিসিউসের কাছে। খুব কাছ থেকে ঠিকানা খুঁজে নেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। ৮৯তম মিনিটে ডেনিসের বাঁকানো শট একটুর জন্য জালে যায়নি। যোগ করা সময়ে কাসেমিরোর কাছ থেকে বল পেয়ে ব্যবধান বাড়ান মদ্রিচ। ব্র“জে জিতে ১১ পয়েন্ট নিয়ে গ্র“প পর্ব শেষ করল ইউরোপের সফল দলটি। দিনের অন্য ম্যাচে গালাতাসারাইকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়া পিএসজি ১৮ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে চূড়ায়। ব্র“জের পয়েন্ট ৩, গালাতাসারাইয়ের ২।

আরো খবর...