দক্ষিণ আফ্রিকার ‘কোচ’ ইনক এনকুয়ে

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বিশ্বকাপের পর নতুন ধারায় এগিয়ে চলার পথে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম কোচের দায়িত্ব পেলেন ইনক এনকুয়ে। সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে ভারত সফরে প্রোটিয়াদের ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব পালন করবেন তরুণ এই কোচ, যদিও তার পদের কেতাবি নাম ‘টিম ডিরেক্টর।’ বিশ্বকাপের পর জাতীয় দল পরিচালনায় প্রথাগত কাঠামো বদলে ফেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যানেজার ও কোচের দায়িত্ব একসঙ্গে মিলিয়ে ফুটবলের কোচের মতো ভূমিকা ও ক্ষমতা দিয়ে এই ‘টিম ডিরেক্টর’ পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। বোর্ডের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, সহকারী কোচ, কোচিং স্টাফের অন্যান্যদের, এমনকি দলের মেডিকেল স্টাফদেরও নির্বাচন করবেন টিম ডিরেক্টর নিজে। এই সাপোর্ট স্টাফের সবাই সরাসরি থাকবেন টিম ডিরেক্টরের অধীনে। আর টিম ডিরেক্টরের দায়বদ্ধতা থাকবে বোর্ডের ক্রিকেট পরিচালক কোরি ফন জিলের কাছে। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের পর কোচ ওটিস গিবসনসহ কোচিং স্টাফদের অন্যান্যদের চুক্তি নবায়ন না করে নতুন এই নিয়োগ দিল ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা। ৩৬ বছর বয়সী এনকুয়ে খেলোয়াড়ী জীবনে ছিলেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার। তবে হাতের চোটের কারণে ৪২ ম্যাচ খেলে প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারের ইতি টানেন মাত্র ২৬ বছর বয়সে। এরপর নাম লেখান কোচিংয়ে। লেভেল ফোর কোচিং সনদ আছে তার। বিভিন্ন বয়সভিত্তিক ও হাই পারফরম্যান্স দলে কোচিং করিয়ে নজর কাড়ার পর দারুণ সাড়া জাগিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া ক্রিকেটের সাফল্যেও। ঘরোয়া ক্রিকেটে সবশেষ মৌসুমে তিনটি শিরোপা জিতে দক্ষিণ আফ্রিকার ফ্র্যাঞ্জাইজি ক্রিকেটের সেরা কোচের পুরস্কার জিতেছেন সম্প্রতি। জাতীয় পর্যায়ের কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা ছিল এর আগে নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলের সহকারী কোচ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়েদের জাতীয় দলের সহকারী কোচ হিসেবে। ভারত সফরে তিনটি করে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা। টেস্টের নেতৃত্বে ফাফ দু পে¬সি থাকলেও রঙিন পোশাকে অধিনায়কের দায়িত্ব পাবেন নতুন কেউ।

আরো খবর...