জিপিএ-৫’র পেছনে না ছুটে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে

কুষ্টিয়া চেম্বারের শিক্ষাবৃত্তি ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে মজিবর রহমান
অর্থাভাবে মেধাবী শিক্ষার্থীরা ঝরে পড়বে এটি হতে দেয়া হবেনা ঃ হাজী রবিউল ইসলাম

নিজ সংবাদ ॥ দেশবরেণ্য শিল্পপতি, বিআরবি গ্র“পের কর্ণধর আলহাজ¦ মজিবর রহমান বলেছেন জিপিএ-৫’র পেছনে না ছুটে প্রকৃত শিক্ষা অর্জন করতে হবে। যে শিক্ষা দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ হবে। আজকাল দেখেছি শিক্ষার্থীরা যে শিক্ষা অর্জন করছে তা প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার মত নয়। কোন প্রতিষ্ঠানে চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দিতে গেলে তাদের কাছ থেকে কাঙ্খিত মেধার প্রতিফলন পাওয়া যাচ্ছেনা। তাই সার্টিফিকেটের জন্য না ছুটে প্রকৃত জ্ঞান অর্জনের পেছনে ছুটতে হবে। তিনি গতকাল শনিবার দুপুরে চেম্বার ভবনের এমআরএস মিলনায়তনে চেম্বার অব কমার্স আয়োজিত মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি ও সন্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন। কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ও কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান হাজী রবিউল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে আলহাজ¦ মজিবর রহমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন তোমরা পড়ালেখায় মনোনিবেশ করবে। পড়ালেখা ছাড়া তোমাদের এখন কোন কাজ নেই। অথচ দেখা যায় ছেলে মেয়েরা পড়ালেখা ছেড়ে বিপথগামী হচ্ছে। ঝুঁকে পড়ছে মাদকের মত ভয়াল নেশায়। এতে করে ওইসব ছেলে মেয়েরা ধংসের পাশাপাশি নি:শ^ হচ্ছে পরিবার। আবার ওইসব ছেলেমেয়েদের হাতে মোবাইল তুলে দিয়ে আরো অধ:পতনের মধ্যে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। এবিষয়ে অভিভাবকদের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। সন্তানেরা কোথায় যাচ্ছে, কি করছে খেয়াল রাখতে হবে। পরিশেষে তিনি শিক্ষা বিস্তারে সব ধরনের সহায়তার আশ^াস দেন। সভাপতির বক্তব্যে চেম্বার সভাপতি হাজী রবিউল ইসলাম বলেন অর্থাভাবে মেধাবী শিক্ষার্থীরা ঝরে পড়বে এটি হতে পারেনা। তোমরা আমাদের সন্তানের মত। আমার কুষ্টিয়াতে কোন মেধাবী মুখ অর্থাভাবে লেখাপড়া করতে পারবেনা এটি মেনে নেয়া যায়না। জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। আমার কাছে সেই দ্বার খোলা রয়েছে। হাজী রবিউল ইসলাম আরো বলেন কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্স প্রতিবছরই অস্বচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি দিয়ে থাকে। এবার তার ব্যত্যয় ঘটেনি। তবে এবার আবেদনের সংখ্যা বেশি থাকায় প্রায় দু’শ শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি ও সম্মাননা দেয়া হলো। এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান। চেম্বার সভাপতি হাজী রবিউল ইসলাম আরো বলেন তোমাদের জন্য যেমন আমাদের দ্বার খোলা রয়েছে, তোমাদেরও তেমনি দেশ ও জাতির কাছে দায়বদ্ধতা রয়েছে। প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সেই মেধাকে কাজে লাগাতে হবে দেশ ও জাতির কল্যাণেই। তবেই আমাদের উদ্দেশ্য সফলকাম হবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা শিক্ষা অফিসার জায়েদুর রহমান। শিক্ষাবৃত্তি কমিটির আহ্বায়ক ওমর ফারুকের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্সের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন মৃধা, আশরাফুদ্দিন নজু, চেম্বারের সহ-সভাপতি এসএম কাদেরী শাকিল, শিক্ষাবৃত্তি কমিটির সদস্য প্রকৌশলী সাইফুল আলম, মোকারম হোসেন মোয়াজ্জেম, মুক্তারুজ্জামান চৌধুরী মুরাদ, কাজী রফিকুর রহমান, শহীদ মুসা মঞ্জু ছাড়াও চেম্বারের সকল পরিচালক, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ। অনুষ্ঠান শেষে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রায় দুই শতাধিক অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের হাতে প্রায় ১০লাখ টাকার শিক্ষাবৃত্তি ও সম্মাননা প্রদান করা হয়।

আরো খবর...