গোপীবাগের ঘটনায় দোষীদের খুঁজে বের করতে কমিশনের প্রতি আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের

ঢাকা অফিস ॥ রাজধানীর গোপীবাগে সিটি করপোরেশ নির্বাচনী প্রচারণার সময় সংঘর্ষের ঘটনায় দোষীদের খুঁজে বের করতে কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এই আহবান জানান। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সেখানে ভিডিও ফুটেজ আছে। গুলি কোন পক্ষ থেকে এসেছে, অফিসে লাথি মারা, এগুলোর ভিডিও ফুটেজে আছে। নির্বাচন কমিশনের উচিত সঠিক তদন্ত করা। সত্য উদঘাটন করা।’ বিএনপির অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, ‘ভিডিও ফুটেজে যেটি আছে তাতে সেটি মনে হয় না। বিএনপি কিছু কিছু অভিযোগ আনছে যেগুলো একেবারেই অন্ধকারে ঢিল ছোঁড়ার মতো।’ মাহবুব তালুকদারের বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে কাদের বলেন, এটি নির্বাচন কমিশনের অভ্যন্তরীণ বিষয়। সেখানে একজন কমিশনার ভিন্নমত পোষণ করতেই পারেন। কিন্তু তিনি (মাহবুব তালুকদার) কথায় কথায় যেভাবে তাদের ঘরের বিষয়, অভ্যন্তরীণ প্রক্রিয়া বাইরে নিয়ে আসছেন, সেটা অবশ্যই সমর্থনযোগ্য নয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন কমিশনের ভিতরে আবার লেভেল পে¬য়িং বিষয় কী? তিনি (মাহবুব তালুকদার) ভিন্নমত পোষণ করতেই পারেন। তবে ইদানীং বিএনপি যে সুরে কথা বলছে, একই সুরে মাহবুব তালুকদারও কথা বলছেন। মনে হয়, তিনি একটা পক্ষ নিয়ে এ ধরনের বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, এটা নিয়ে আমরা কথা বলবো। আপাতো দৃষ্টিতে মনে হবে প্রত্যেকেই নিজের পক্ষে কথা বলছে। বিএনপি তাদের কথা বলছে। বিদেশি রাষ্ট্রদূতদের উনারা (বিএনপি) বুঝাতে চাইছেন যে, আক্রমনটা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে হয়েছে। কিন্তু বাস্তবে ভিডিও ফুটেজে যা কিছু আছে তাতে কিন্তু সেটা মনে হয় না। ইসিকে আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের বর্তমান উৎসব মুখর পরিবেশে অব্যাহত রাখতে নির্বাচন কমিশনকেই উদ্যোগ নিতে হবে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এখন কমিশনের নিয়ন্ত্রণে। যারা পরিবেশ নষ্ট করছেন, তাদের বিরুদ্ধে কমিশনই ব্যবস্থা নিতে পারেন। শেষ সময়ে আমরা কোনো প্রার্থীকে আটক বা হয়রানি করতে নির্দেশ দিচ্ছি না।

আরো খবর...