গাংনীতে ৬ মামলার আসামী লাল্টু  আটক

গাংনী প্রতিনিধি  ॥ মেহেরপুর জেলার গাংনীতে একটি  হত্যা মামলাসহ ৬টি মামলার আসামী লাল্টু হোসেন (৪২)  নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত লাল্টু গাংনী উপজেলার সাহেবনগর গ্রামের বাসিন্দা ও যুবক ডাবলু হত্যা মামলার পলাতক আসামী। গতকাল বুধবার দুপুর ২টার দিকে গাংনী থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলামের নেতৃত্ব পুলিশের একটিদল কুষ্টিয়া জেলার প্রাগপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে লাল্টুকে আটক করেন। গাংনী থানা সূত্র জানায় গত ১৬ মে শনিবার বিকেলে গাংনী উপজেলার কাজীপুর-সাহেবনগর গ্রামের মধ্যেবর্তি গোলাম বাজারের অদূরে একটি লিচু বাগান দখল নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষের ২জন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এ সময় আহত  হয় দু’পক্ষের আরো ২জন। নিহতরা হলেন-কাজীপুর গ্রামের খবির উদ্দীনের ছেলে ইসমত কবির ডাবলু ও অন্য পক্ষের নিহত হলেন-সাহেবনগর গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে সানাউল্লাহ। এসময় আহত হন ডাবলুর বাবা খবির উদ্দীনসহ অন্য পক্ষের আরো একজন। ওই ঘটনায় পাল্টা-পাল্টি মামলা করা হয়। ঘটনার পর-পরই নিহত ডাবলুর মা ইসলামা খাতুন বাদী হয়ে কাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিবকে ১নং ও লাল্টু  হোসেনকে ২নং আসামী করে ১০জনসহ অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে গাংনী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার  মামলা নং- ১৬ তাং- ১৭/০৫/২০। একই ঘটনায় প্রতিপক্ষ সানাউল্লাহ নিহত হওয়ায় তার  স্ত্রী বাদী হয়ে খবির উদ্দীনসহ আরো বেশ কয়েকজনের নামে গাংনী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। যার মামলা নং- ১৭ ,তাং ১৭/০৫/২০ইং। বুধবার ডাবলু হত্যা মামলার ২নং আসামী লাল্টু হোসেনকে কুষ্টিয়ার জেলার প্রাগপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়। আটককৃত লাল্টুর নামে ডাবলু হত্যাসহ চাঁদাবাজি, ডাকাতির অভিযোগে গাংনী ও কুষ্টিয়ার মিরপুর থানায় ৬টি মামলা রয়েছে। গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবাইদুর রহমান জানান হত্যার ঘটনার পর থেকে লাল্টু পলাতক ছিল। তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। মেহেরপুর আদালতে পাঠানো হবে।

আরো খবর...