গাংনীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

ছাত্রীকে মারধর

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের করমদী গ্রামে এক স্কুল ছাত্রীকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাইদুর রহমান সাঈদ (২০) নামের এক কলেজ ছাত্রকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সাঈদ উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামের সাহাজুল ইসলামের ছেলে ও গাংনী পাইলট মাধ্যমিক স্কুল এন্ড কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। গতকাল বুধবার বিকেলে পৌনে ৩টার দিকে উপজেলার করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয় এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে সাঈদকে জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায় বুধবার সকালের দিকে করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এক ছাত্রী সহপাঠীদের সাথে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। এ সুযোগে সাইদুর রহমান সাঈদ শারীরিকভাবে তাকে নির্যাতন করেন (চড়-থাপ্পড় মারেন)। এসময় বিক্ষুদ্ধ হয়ে পথচারী ও করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাঈদকে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে আটকে রেখে প্রধান শিক্ষককে অবগত করে এবং নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানায়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ আলম হুসাইন বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করেন। খবর শুনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। এসময় পুলিশের একটিদল উপস্থিত ছিল। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয় । এসময়  সাঈদ তার নিজের (দোষ) অপরাধ স্বীকার করলে ৪০ হাজার জরিমানা করা হয়। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী জানায়, সাঈদ কয়েক বছর যাবত ধরে আমাকে নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছিলেন। আমি তাকে গুরুত্ব না দেয়ায় রাস্তায় পেয়ে আমাকে মারধর করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান জানান, অভিযুক্তের বয়স এবং ছাত্রত্বের বিষয়টি বিবেচনা করে ৪০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়েছে।

আরো খবর...