গাংনীতে বন্ধুর দেয়া কোমল পানি খেয়ে যুবক অজ্ঞান

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে শাহারুল ইসলাম (২২) নামের এক যুবক কোমল পানীয় (এলকোহল দ্রব্য) পান করে মারাত্মকভাবে অসুস্থ হয়েছেন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। যুবক শাহারুল গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া গ্রামের মোমিনুল ইসলামের ছেলে। এ ঘটনায় একই উপজেলার রামনগর গ্রামের হোসেন শাহের ছেলে  ও শাহারুলের বন্ধু মোখলেছুর রহমানকে দায়ি করে গতকাল শনিবার দুপুরে গাংনী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন শাহারুলের বাবা মোমিনুল ইসলাম। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, শাহারুল ইসলাম দু’বছর পূর্বে বিয়ে করেন রামনগর গ্রামের বুলবুল হোসেনের মেয়ের সাথে। শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার সূত্র ধরে রামনগর গ্রামের মোখলেছুর রহমানের সাথে তার বন্ধুত্ব হয়। বন্ধুত্বের কারণে গত শুক্রবার বিকেলে শাহারুল রামনগর গ্রামে গিয়ে মোখলেছুর রহমানের সাথে ঘোরাফেরা করেন। এক পর্যায়ে মোখলেছুর তার কাছে থাকা একটি প্লাষ্টিক বোতলে কোমল পানি শাহারুলকে খাইতে দেন। ওই পানি খাওয়ার পরই শাহারুল অজ্ঞান হয়ে যান। এসময় শাহারুলের কাছে থাকা ১১ হাজার ৫০০ টাকা ও একটি মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যান মোখলেছুর। পরে স্থানীয় লোকজন শাহারুলকে উদ্ধার করে গাংনী হাসপাতালে ভর্তি করেন। গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবাইদুর রহমান জানান অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। দোষি হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো খবর...