গাংনীতে পরকীয়ার অভিযোগে আশরাফুল এখন পুলিশের গ্যাঁড়াকলে

গাংনী প্রতিনিধি \ মেহেরপুরের গাংনীর বাস্ট্যান্ডে পরকীয়া প্রেমিকা (২য় স্ত্রী) সোমা’র অভিযোগের ভিত্তিতে আশরাফুল ইসলাম (৩০) এখন পুলিশের গ্যাঁড়াকলে পড়ে গেছে। স্ত্রী-সন্তান রেখে গোপনে বিয়ে করে পালিয়ে বেড়ানোর খেসারত দিতে হলো মেহেরপুরের কলেজপাড়ার ছেলে আশরাফুলকে। জানা গেছে, মেহেরপুরের কলেজপাড়ার রবিউল ইসলামের ছেলে আশরাফুল ইসলাম স্ত্রী সন্তান রেখে গোপনে পার্শ্ববর্তী চাঁদবিল গ্রামের খেদের আলীর মেয়ে সোমা খাতুনের (২২) সাথে মিথ্যা বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ মেলা মেশা করে। অবৈধ মিলনের ফলে একপর্যায়ে সোমা খাতুন ৩ মাসের অন্তঃসত্ত¡া হয়। সোমা তার সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবি তুললে আশরাফুল নানাভাবে গড়িমসি করতে থাকে। বিপদ থেকে রক্ষা পেতে আশরাফুল বিদেশে পাড়ি দেয়ার অভিসন্ধি করে। এ ব্যাপারে গাংনীতে আসলে ওৎ পেতে থাকা সোমা আশরাফুলকে ধরে টানাহেচড়া করে। এসময় আশরাফুলের সহকারীরা মেয়েটিকে লাঞ্ছিত করে। এসময় স্থানীয়রা ধরে পুলিশে দেয়।বর্তমানে দুজনকেই থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ ওবাইদুর রহমান জানান, দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এরা নাকি স্বামী স্ত্রী । স্ত্রীর অভিযোগ সত্য হলে অভিযুক্ত ছেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো খবর...