গাংনীতে এনজিও ঋণের কিস্তি আদায় বন্ধ রাখতে এমপি সাহিদুজ্জামান খোকনের  তৎপরতা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ রোধে সরকারীভাবে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ওষুধের দোকান ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান ছাড়া সকল প্রকার মার্কেট ও দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন। লকডাউনের কারণে নানা পেশার মানুষ তাদের ক্ষুদ্র ব্যবসা বাণিজ্যসহ আয় রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে। সে কারণে এসব বিবেচনায় রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৬ মাসের জন্য এনজিও ঋণের কিস্তি আদায় বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছেন। এই তথ্য প্রকাশের পরও উপজেলার কয়েকটি এনজিও  নির্দেশনা উপেক্ষা করে তাদের কর্মীরা অসহায় দরিদ্র কর্মহীন মানুষের বাড়ীতে কিস্তি তুলতে যাচ্ছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের  জাতীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন গাংনী উপজেলা সদরে অবস্থিত বিভিন্ন এনজিও অফিসে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে এনজিও কর্মীদের ৬ মাস কিস্তি আদায় থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ  জানিয়েছেন।      গতকাল বুধবার বিকেল ৪টার সময় গাংনী উপজেলা শহরের দোকানপাটসহ গ্রাম অঞ্চলের দোকানপাট পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেন। এসময় এনজিও অফিসগুলোতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে আলাপ করে কিস্তি আদায় করতে অনুরোধ জানান। এসময় গাংনী পৌরসভার মেয়র আশরাফুল ইসলামসহ  দলীয় নেতা কর্মী সমর্থকরা সাথে ছিলেন। অন্যদিকে দোকানপাট বন্ধ রাখতে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমানের নেতৃত্বে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে উপজেলার চিৎলা, ধানখোলা ও আড়পাড়া গ্রামে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

 

আরো খবর...