‘গন্ডি’ ছবির শুটিং সেটে সব্যসাচী

বিনোদন বাজার ॥ এর আগে ‘ভুবন মাঝি’ সিনেমা নির্মাণ করে প্রশংসিত হয়েছেন ফাখরুল আরেফিন খান। এবার তিনি নির্মাণ করছেন ‘গন্ডি’ নামের নতুন একটি চলচ্চিত্র। ছবিটির প্রথম ধাপের চিত্রায়ন শেষে দ্বিতীয় ধাপের কাজ শুরু হলো সোমবার। তার আগে রবিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে এক জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনে কলাকুশলীদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিলেন নির্মাতা। চলচ্চিত্রটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন কলকাতার অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী। রোমান্টিক-কমেডি ঘরানার এই চলচ্চিত্রে তার বিপরীতে অভিনয় করছেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। তাদের দুজনকে ঘিরেই এগিয়েছে গল্প। গত বৃহস্পতিবার গুলশান পার্কে ছবিটির শুটিং হয়। সেখানে সব্যসাচীর সঙ্গে শুটিংয়ে অংশ নেন বাংলাদেশের মঞ্চনাটকের গুণী অভিনেতা ও নির্দেশক মোহাম্মদ বারী। তিনি বলেন, অভিনেতা নন তিনি, শিল্পী। ফাখরুল আরেফিনের নতুন ছবি ‘গন্ডি’র শুটিং করতে করতে অনুভব করলাম সব্যসাচী চক্রবর্তীর শিল্পীসত্তা। বড় অভিনেতার থেকে বড় মানুষ তিনি। ১৯৯২ সাল থেকে সিনেমায় অভিনয় করছেন সব্যসাচী। বাংলা সিরিয়ালেরও পরিচিত এই মুখ অভিনয় করেছেন শতাধিক বাংলা, হিন্দি ও তামিল ছবিতে। সব্যসাচী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ আমাকে অনেক ভালোবাসা দিয়েছে। বহুদিন ধরে আমি তাদের কাছ থেকে যেই ভালোবাসা পেয়েছি তা ভুলবার নয়। আরেফিন ভাই যে আমাকে এ ছবির জন্য ভাবলেন, এটাই আমার কাছে আশ্চর্য লেগেছে। কেননা আমি সারাজীবন হয় পুলিশ, নয় গুন্ডা, নইলে গোয়েন্দা চরিত্রে অভিনয় করে যতদূর আসা সম্ভব হয়েছে, এগিয়েছি। আমার যা চেহারা, আমার তো অভিনেতা হওয়ার কোনো চান্সই ছিল না। আমার অভিনয় গুণ অনেক কম ছিল। কিন্তু আমি জানি না কেমন করে হয়ে গেল। তবে বকা খেয়েছি, অনেক ঘাম ঝরিয়েছি, পরিশ্রম করেছি। সহশিল্পী হিসেবে সুবর্ণা মুস্তাফাকে পেয়েও দারুণ উচ্ছ্বাসিত তিনি। বললেন, আমার সৌভাগ্য যে, আমি এমন একজন অভিনেত্রীর বিপরীতে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি যিনি অসম্ভব জনপ্রিয় এবং অনেক কিছু জানেন। এই ছবিতে কাজ করে আমি এতটুকু বুঝেছি যে, আমি হ্যাঁ বলে ভুল করিনি। প্রবীণ দুজন নারী-পুরুষের গল্প নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ‘গন্ডি’। যার প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুবর্ণা মুস্তাফা ও সব্যসাচী চক্রবর্তী। আরো অভিনয় করছেন অপর্ণা ঘোষ, মাজনুন মিজান, আমান রেজা, মোহাম্মদ বারী প্রমুখ।

আরো খবর...