গণস্বাস্থ্যের ডট ব্লট কিট নিয়ে ওষুধ প্রশাসন পজিটিভ – ডা. মুহিব

ঢাকা অফিস ॥ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কোভিড-১৯ র‌্যাপিড ডট ব্লট কিট নিয়ে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরে আলোচনা হয়েছে। তারা এ বিষয়ে পজিটিভ। গতকাল রোববার দুপুরে অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কোভিড-১৯ র‌্যাপিড ডট ব্লট কিট প্রকল্পের সমন্বয়ক ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার একথা বলেন। ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার বলেন, ‘পুনরায় এক্সটার্নাল ভেরিফিকেশন করে রিপোর্ট জমা দিতে বলেছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। তারা পজিটিভ। ওনারা বলেছেন,যত তাড়াতাড়ি সম্ভব, সমাধান করে দেবেন। আমরাও আশাবাদী।’ এর আগে দুপুর ১২টার দিকে ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার ও কিট উন্নয়ন দলের কয়েকজন বিজ্ঞানী ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের (ডিজিডিএ) সঙ্গে কথা বলেন। ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার বলেন, ‘ডিজিডিএ আমাদের কথা ইতিবাচকভাবে শুনেছেন। অ্যান্টিবডির বিষয়ে ইন্টারনাল ভ্যালিডেশন রিপোর্টকে আমলে এনে নিবন্ধনের অনুরোধ করেছিলাম। ডিজিডিএ বিদ্যমান সরকারি নিয়মে আবার সিআরওর মাধ্যমে ইউএস এফডিএ (ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) আমব্রেলা গাইডলাইন্স এক্সটারনাল ভ্যালিডেশন করতে বলেছেন। এজন্য আমাদের আবেদিত রি-এজেন্টের (কিট) জন্য এনওসি দেবেন। অ্যান্টিজেনের নীতিমালা আগামী বুধবার চূড়ান্ত হবে। একটা ফরম্যাট পাঠাবেন। ওটা অনুযায়ী প্রটোকল আপডেট করে জমা দিতে বলেছেন।’ এর আগে শনিবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এক  সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বরাত দিয়ে বলা হয়, ওষুধ প্রশাসনের মহাপরিচালক গতকাল রোববার জিকের (গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র) আপডেটেড অ্যান্টিবডি কিটের তথ্য-উপাত্ত জানতে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের ডেকেছেন।

আরো খবর...