খালেদা জিয়ার পক্ষে আদালতে লড়বেন ড. কামাল

ঢাকা অফিস ॥ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলায় প্রয়োজন হলে লড়বেন বলে জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। মঙ্গলবার কামাল হোসেনের মতিঝিল চেম্বারে খালেদা জিয়া ইস্যুতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জরুরি সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান। খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে টালবাহানার নিন্দা জানাচ্ছি। তার উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা নেয়াসহ অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করছি। খালেদা জিয়ার মামলায় ড. কামাল হোসেন লড়বেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা বলার কথা না। যদি প্রয়োজন হয়, অবশ্যই আমি মামলায় লড়ব। ড. কামাল বলেন, সম্প্রতি মিডিয়ায় প্রকাশিত তথ্যের আলোকে আমরা জেনেছি, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া কারাগারে অত্যন্ত অসুস্থ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। তার স্বাস্থ্যের অবনতির কারণে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আমরা গভীর উৎকণ্ঠা ও উদ্বেগ প্রকাশ করছি। আমরা স্পষ্ট ভাষায় উল্লেখ করতে চাই, খালেদা জিয়ার অনভিপ্রেত কিছু হলে তার সব দায় সরকারকেই নিতে হবে। অসুস্থ খালেদা জিয়াকে জামিন না দিয়ে আদালত ভুল করেছেন মন্তব্য করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন- একটা অসম্পূর্ণ রিপোর্ট দেখে মামলা ডিসমিস করে বিচারপতিরা ভুল কাজ করেছেন। অনৈতিক কাজ করেছেন। মানবিক কারণেই উনাকে মুক্তি দিতে কোথাও কোনো বাধা নেই। যদি প্রয়োজন হয় আমাদের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন কোর্টে যাবেন খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য। কিন্তু বিচারপতিরা যদি পাথরের মত থাকেন, বিবেকহীন থাকেন, তাহলে তো কিছু হবে না। আন্দোলন ছাড়া আমাদের কোনো পথ নাই। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়্যিদ, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, বিকল্পধারা বাংলাদেশের একাংশের সভাপতি অধ্যাপক ড. নুরুল আমিন বেপারী প্রমুখ।

আরো খবর...