কোভিড-১৯ ভাইরাসে নতুন করে ৫ জন আক্রান্ত – মালেক

ঢাকা অফিস ॥ গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসে দেশে আরো ৫জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬১ জনে। তবে গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কেউ মৃত্যুবরণ করেননি। রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে যুক্ত হয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এ তথ্য জানান। এ সময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদ, আইইডিসিয়ার’ পরিচালক ড. মির্জাদী সেব্রিনা ফ্লোরা, পরিচালক (এমআইএস) ডা. মো.হাবিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য কিটের সংকট নেই। রাজধানীসহ সারা দেশে নমুনা পরীক্ষার ল্যাবরেটরির সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে।’ করোনা আক্রান্ত সন্দেহভাজন রোগীদের স্বপ্রণোদিত হয়ে বেশি বেশি করে নমুনা পরীক্ষা করতে সংশ্লিষ্ট ল্যাবরেটরিতে যোগাযোগের আহ্বান জানান মন্ত্রী। প্রয়োজন ছাড়া বাসাবাড়ি থেকে বের না হতে দেশবাসীকে অনুরোধ জানান তিনি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, ‘আমরা গত ২৪ ঘন্টায় ৫১৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করিয়েছি। এরমধ্যে আইইডিসিয়ারে পরীক্ষা করা হয়েছে ১২৬টি এবং দেশের অন্যান্য ল্যাবরেটরিতে ৩৮৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। দেশে সর্বমোট ২ হাজার ৪১৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা আছে এমন সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা ৬১ জন। অর্থাৎ গত ২৪ ঘন্টায় নতুন ৫ জন আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এই ৫ জনের মধ্যে ২ জন আইইডিসিয়ারে আর বাকি ২টি অন্যান্য ল্যাবের পরীক্ষায় পাওয়া গেছে।’ তিনি জানান, আক্রান্ত ৬১ জনের মধ্যে ইতোপূর্বে ৬ জন মারা গেছেন এবং ২৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি গেছেন। এই মুহূর্তে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২৯ জন এবং ৭ জন বাড়িতে আমাদের পর্যবেক্ষণে চিকিৎসা নিচ্ছেন।’ তিনি জানান, গত ২৪ ঘন্টায় আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে ১৪ জন, ১০ জনকে আইসোলেশন থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত ৩০৫ জনকে আইসোলেশন করা হয়েছিল । বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৮২ জন। মহাপরিচালক জানান, এ পর্যন্ত ৬৪ হাজার ২৩৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন ও ২৪৮ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। অর্থ্যাৎ মোট ৬৫ হাজার ৪৮৪ জনকে কোয়ারেন্টাইন করা হয়। গত ২৪ ঘন্টায় ৫৪৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন ও ৫ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন করা হয়। অর্থ্যাৎ ২৪ ঘন্টায় কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে ৫৫২ জনকে। এ পর্যন্ত ৪৮ হাজার ৩১ জনকে কোয়ারেন্টাইন মুক্ত করা হয়েছে। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৬ হাজার ৪৫৩ জনকে। করোনা প্রতিরোধে দেশবাসীকে কোয়ারেন্টাইন বিধিমালা কঠোরভাবে মেনে চলার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাসে প্রতিরোধে সরকার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে ব্যক্তি পর্যায়ে সতর্ক থাকলে করোনা বিস্তার রোধ করা সম্ভব হবে।’ বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে তিনি বলেন, এ পর্যন্ত বিশ্বের ৮ লাখ ৯৬ হাজার ৪৫০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৫ হাজার ৫২৬ জন। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭২ হাজার ৮৩৯ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৪ হাজার ৯২৪ জন। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এ পর্যন্ত ৫ হাজার ৩২৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যুবরণ করেছেন ২১৬ জন। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৪৯ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২১ জন।

 

আরো খবর...