কুষ্টিয়ায় ৩ মাসের শিশু হত্যার দায়ে চাচীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড

পূর্ব শক্রতার জের

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া মডেল থানার সদ্যজাত (৩মাস) একটি শিশু হত্যা মামলায় শাপলা রাণী (২২)নামে শিশুর চাচীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল রবিরার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামীর আদালত আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় দেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হলেন- কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর দাসপাড়া গ্রামের বিশু কুমার দাসের স্ত্রী শাপলা রানী দাস (২২)। আদালতের প্রসিকিউশন সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২২ জানুয়ারী দুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলার আলামপুর দাসপাড়া গ্রামের মানিক কুমার দাসের ৩ মাস বয়সী শিশু মুক্তা রানী দাসকে ঘরের বারান্দায় শোয়া অবস্থায় থেকে নিখোঁজ হয়। ঘটনার দিন রাত পৌনে ৮টার দিকে বাড়ীর পাশর্^স্ত টিউবওয়েলের পাশ থেকে মৃত শিশুকে খুঁজে পান পরিবারের লোকজন। এ ঘটনায় নিহত শিশুর দাদা সুনীল কুমার দাস বাদি হয়ে পরদিন ২৩ জানুয়ারী অজ্ঞাত আসামীর বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় অপহরণ পূর্বক হত্যা মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ১৪ মার্চ  আদালতে চার্জশীট দেয় পুলিশ। তদন্তকালে হত্যাকান্ডের মোটিভ সম্পর্কে পুলিশ জানতে পারে, ঘটনার কয়েক বছর পূর্বে নিহত শিশুর পিতা মানিক কুমার দাসের চাচাত ভাই বিশু কুমার ও শাপলা রানী দাসের একটি শিশু পুত্রকে নিহত মুক্তা রানীর দাদী গোলাপী রানী দাস গোসল করিয়ে দেন। পরে শিশুটি ঠান্ডা জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। এতে শাপলা রানী দাসের বিশ^াস যে, গোলাপী রানী দাসের গোসল করানোর জন্যই তার শিশুটির মৃত্যু হয়। এই আক্রোশ থেকেই আসামী শাপলা রানী দাস প্রতিশোধ নিতে মুক্তা রানী (৩মাস) কে হত্যা করেন বলে প্রাথমিক সত্যতা নিশ্চিত হয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই রব্বানী সরকার দ:বি: ৩০২ ধারায় আসামী শাপলা রানী দাসের বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডের অভিযোগ দাখিল করেন আদালতে। কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারী কৌশুলী এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী জানান, চাঞ্চল্যকর এই শিশু হত্যা মামলাটি স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমানিত হওয়ায় হত্যাকান্ডের দায়ে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদন্ডযোগ্য হওয়ার পরেও আসামী শাপলা রানী দাসের যেহেতু দুটি নাবালোক শিশু সন্তান আছে, ওই শিশুদ্বয়কে অকালে এতিম না করার বিষয়ে বিবেচনা করে তাকে মৃত্যুদন্ডের পরিবর্তে যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১বছরের সাজার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আরো খবর...