কুষ্টিয়ায় লালন মাজার শরীফ ও সেবাসদনের আয়োজনে সাংবাদিক সম্মেলন

২লালন একাডেমি উচ্ছেদ নয়, স্থানান্তর চাই এই  শ্লোগানকে সামনে  রেখে মাননীয় সুপ্রিম কোর্টের রায় বাস্তবায়নের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে লালন মাজার শরীফ ও সেবাসদন কমিটি। গতকাল শুক্রবার কুষ্টিয়া সদর উপজেলার  আলামপুরের,  আলামপাড়ার (গাজী বাবার দরগায় মাজার শরীফে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। লালন মাজার  শরীফ ও সেবাসদন কমিটির সভাপতি মোঃ আহসান আলী ( তুফান) বলেন লালন, একাডেমি ও মাজার শরীফ দুটি আলাদা আলাদা প্রতিষ্ঠান। মাননীয় সুপ্রিম কোর্টের রায় দিয়েছে লালন মাজার প্রকৃত ফকির সাধু ভক্তদের ফিরিয়ে দেওয়া হোক। তবে কিছু অদৃশ্য সিন্ডিকেটের কারণে প্রকৃত সাধু ভক্তদের কাছে লালন মাজার হস্তান্তর করা হচ্ছে না। সংবাদ সম্মেলনে লালন মাজার শরীফ ও সেবাদান কমিটির সভাপতি মোঃ আহসান  আলী (তুফান) সেবাসদন কমিটির পক্ষ্য থেকে  লিখিত স্মারকলিপি থেকে বলেন আমরা দেশবাসীকে  জানাতে চাই লালন মাজার শরীফ সেবা সদন কমিটি প্রকৃত লালন ভক্ত অনুসারীদের সার্বভৌমত্ব এক প্রতিনিধিত্বকারী প্রতিষ্ঠান বা সংগঠন। তাই আমি এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে বলতে চাই  যার ধর্ম তার তার সাম্প্রদায়িক শাসন নিপাত যাক।  আমাদের জায়গা আমরা থাকবো আমাদের তীর্থ আমরা চালাবো। মাননীয় সুপ্রীম কোর্টে রায় বাস্তবায়ন  করতে একাডেমি কুষ্টিয়াকে আজকের সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে অনুরোধ করছি এবং লালন মাজার শরীফ সেবা সদন কমিটির এই অধিকার আদায়ের আইনি সংগ্রাম  ও দাবির সাথে সকল শ্রেণী- পেশার মানুষকে পাশে থাকা ও সহযোগিতা করার জন্য আহবান করছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন লালন মাজার শরীফ ও সেবাসদন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফকির হাসান হাফিজ, ধর্ম ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ফকির শামসুল, সাধুগুরু  ফকির আলাউদ্দিন, সাধুগুরু ফকির সিরাজ সাই, সদস্য আনোয়ারা ফকিরানীসহ লালনের অন্যান্য ভক্তবৃন্দরা। এসময় সমস্ত সাধু ফকিররা বলেন আমারা আমাদের মাজার শরীফ ফিরে  যেতে চাই। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আরো খবর...