কুষ্টিয়ায় পুলিশের আক্রান্ত ৩৪ সদস্যের মধ্যে ২৬জন সুস্থ হয়ে কাজে ফিরছেন

প্রথম দিকে ভেঙ্গে পড়লেও এখন মনোবল চাঙ্গা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় গত মাসে মিরপুর উপজেলার একটি ক্যাম্পের এক সদস্যের করোনা ধরা পড়ে। এরপর তিনি হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হয়ে কয়েকদিন পরেই সুস্থ হয়ে কাজে যোগদেন। এরপর এক সাথে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনে ১৩ সদস্যের করোনা সনাক্ত হয়। এরপর পুলিশ সদস্যদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি অফিসাররাও চিন্তাই পড়ে যান। এ অবস্থায় পুরো টিমকে কয়েকটি ভাগে বিভক্ত করে ফেলা হয়। এরপর সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৩৪জন সদস্য করোনা আক্রান্ত হলেও ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৬জন। এ অবস্থায় সবার মধ্যে মনোবল ফিরে এসেছে। আক্রান্ত আগের থেকে কমে গেছে।

গতকাল সোমবার সকাল ১১টার দিকে সুস্থ হওয়ায় ১৭ সদস্যকে ফুল দিয়ে উপহার জানান পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত। তিনি ধৈর্র্য ধরে চিকিৎসা নেয়ার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান। সুস্থ হওয়া সদস্যরা আপাতত আরো ১৪দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। এরপর পরিবারের সদস্যদের কাছে কিছুদিন কাটিয়ে কাজে যোগ দিবেন। এ সময়টাতে সাবধান থাকাসহ ভিটামিন সি জাতীয় খাদ্য সামগ্রী খাওয়ার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানান পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, আজাদ রহমান ও আতিকুর রহমান আতিক।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজাদ রহমান বলেন,‘  এক সাথে ১৩ সদস্যের করোনা সনাক্ত হওয়ার পর কিছুটা উৎকণ্ঠা বেড়ে যায়। এরপর চলাফেরা ও থাকার বিষয়টি কঠোরভাবে মনিটরিং করা হয়। এরপর আল্লাহর রহমতে আক্রান্ত কমে এসেছে। এখন ২৬জন স্স্থু হয়েছেন। আর আইসোলেশনে আছেন ৮জন। এর মধ্যে ২জন এসআই, ৫জন এএসআই, বাকিরা কনেস্টবল। এর মধ্যে দুই নারী সদস্য আগেই সুস্থ হয়েছে।

প্রথম ৯ সুস্থ হওয়ার এক যোগে ১৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে। বিষয়টি সবার মধ্যে মনোবল বাড়িয়েছে। সবাইকে আপাতত কঠোর নিয়ম মেনে চলতে হবে।

পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত বলেন,‘ কুষ্টিয়া পুলিশের যেসব সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তাদের জন্য হাসপাতালেই উন্নত পরিবেশে রাখা হয়েছিল। তাদের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। মনোবল যাতে না ভেঙ্গে পড়ে যে বিষয়টি মাথায় রেখে প্রতিনিয়ত আমরা তাদের গাইড লাইন দিয়ে এসেছি। তাদের কোন অভাব বুঝতে দেয়নি। আলহামদুলিল্লাহ, ২৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে। বাকিরাও সুস্থ হওয়ার পথে। আর আক্রান্ত যাতে না হয় সে জন্য প্রয়োজনীয় নানা উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এখন আক্রান্ত নেই বললেই চলে।

 

আরো খবর...