কুষ্টিয়ায় নতুন করে আরো ৩৬ জন করোনায় আক্রান্ত

জেলায় কোভিড রোগী হাজার ছুই ছুই

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় এক উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সহ নতুন করে আরে ৩৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত ইউএনও হলেন, দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। এ নিয়ে কুষ্টিয়ায় এখন পর্যন্ত ৯৭৪ জন কোভিড রোগী সনাক্ত হলো। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১৯ জন। গতকাল ১২ জুলাই রবিবার রাত ১১ টার দিকে কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন অফিস থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। সিভিল সার্জন অফিস থেকে কোভিড ১৯ আপডেটে জানানো হয়, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে রবিবার কুষ্টিয়ার ২০৩ টি নমুনা করে করে ৩৬ জনকে করোনা পজিটিভ বলে সনাক্ত করা হয়েছে। নতুন আক্রান্তের মধ্যে ভেড়ামারায় ১ জন, দৌলতপুরে ৫ জন, খোকসায় ৩ জন, কুমারখালীতে ৪ জন, কুষ্টিয়া সদরে ২১ জন, মিরপুরে ২ জন। কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় আক্রান্ত ২১ জনের ঠিকানা হাউজিং এ ব্লক ১ জন, আলফার মোড় ১ জন, থানাপাড়া ৪ জন, টালিপাড়া ১ জন, স্বস্তিপুর ১ জন, জটপাড়া ১ জন, হাউজিং ১ জন, আড়–য়াপাড়া ২ জন, কুমারগাড়া ১ জন, চৌড়হাস ২ জন, ত্রিমোহনী ১ জন, লাহিনীপাড়া ১ জন, কালিশংকরপুর ২ জন, কুষ্টিয়া সদর ১ জন, রাজার হাট মোড় ১ জন। দৌলতপুর উপজেলায় আক্রান্ত ৫ জনের ঠিকানা আল্লারদরগা ১ জন, ডাচবাংলা ব্যাংক ১ জন, হোগলবাড়িয়া ১ জন, উপজেলা পরিষদ ১ জন, গরবাড়িয়া ১ জন । মিরপুর উপজেলায় আক্রান্ত ২ জনের ঠিকানা পোড়াদহ ও নওদা। খোকসা উপজেলার আক্রান্ত ৩ জনের ঠিকানা ওসমানপুর, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, জানিপুর। কুমারখালি উপজেলার আক্রান্ত ৪ জনের ঠিকানা সদকি, উপজেলা পরিষদ কোয়ার্টার, লক্ষীপুর, অগ্রণী ব্যাংক। ভেড়ামারা উপজেলার আক্রান্ত ১ জনের ঠিকানা ঠাকুর দৌলতপুর। নতুন আক্রান্তের মধ্যে পুরুষ ২৫ জন, মহিলা ১১ জন। কুষ্টিয়ায় এখন পর্যন্ত ৯৭৪ জন কোভিড রোগী সনাক্ত হল (বহিরাগত বাদে)। উপজেলা ভিত্তিক রোগী সনাক্তঃ দৌলতপুর ১২০, ভেড়ামারা ৯৩, মিরপুর ৫৬, সদর ৫২৯, কুমারখালী ১৪১, খোকসা ৩৫ জন। মোট পুরুষ রোগী ৭০৬ , নারী ২৬৮ জন।
সুস্থ হয়ে ছাড় পেয়েছেন মোট ৪৯৫ জন। উপজেলা ভিত্তিক সুস্থ ৪৯৩ জনঃ (দৌলতপুর ৭০, ভেড়ামারা ৭৪, মিরপুর ৩৭, সদর ২২৫, কুমারখালী ৬৬, খোকসা ২১)। বহিরাগত সুস্থ ২ জন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ৪২৯ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩৩ জন। মৃত -১৯ জন (কুমারখালী-৪, দৌলতপুর-১, ভেড়ামারা-১, কুষ্টিয়া সদর ১৩ ) জন। মৃত পুরুষ ১৫, মহিলা ৪ জন। আতংকিত না হয়ে সতর্কতা অবলম্বন করুন। ঘরে থাকুন, বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হবেন না, বার বার সাবান দিয়ে হাত ধৌত করুন। যত্রতত্র কফ, থুতু ফেলবেন না। হাঁচি, কাশি দেয়ার সময় টিস্যু পেপার, রুমাল, বাহুর ভাঁজ ব্যবহার করুন ও ব্যবহৃত টিস্যু ঢাকনাযুক্ত বিনে ফেলুন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। একে অপরের থেকে কমপক্ষে ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রাখুন ও মাস্ক ব্যবহার করুন।

আরো খবর...