কুষ্টিয়ায় নতুন করে  আরে ৩৮ জন করোনায়  আক্রান্ত

জেলায় ৭৪৬ জন কোভিড রোগী সনাক্ত; মৃত্যু ১৩

নিজ সংবাদ ॥ পজেটিভ রোগী না থাকার পরদিনই কুষ্টিয়ায় নতুন করে আরো ৩৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত ৭৪৬ জন কোভিড রোগী সনাক্ত হলো।  এ পর্যন্ত জেলায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে  ১৩ জনে।

গতকাল রবিবার রাতে কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন অফিস থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। কোভিড-১৯ আপডেটে জানানো হয়, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ৫ জুলাই  মোট ৩৭০ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে কুিিষ্টয়ার ১৯৩ টি নমুনা ছিল

যার মধ্যে নতুন করে ৩৮ জনকে আক্রান্ত বলে সনাক্ত করা হয়েছে। এছাড়া মিরপুরের ১টি নমুনার রিপোর্ট ফলোয়াপ পজেটিভ। নতুন আক্রান্তের মধ্যে  দৌলতপুরে ৪ জন, ভেড়ামারায় ৫ জন, সদরে ২০ জন, কুমারখালীতে ৭ জন এবং খাকসায় ২ জন।সদর উপজেলায় আক্রান্ত ২০ জনের ঠিকানা আইলচারা ১ জন, থানাপাড়া ১ জন, কমলাপুর ১ জন, বটতৈল ১ জন, কানাবিলের মোড় ১ জন, চেচুয়া ১ জন, কালিশংকরপুর ১ জন,  কোর্টপাড়া ৩ জন,  চৌড়হাস ২ জন, হাউজিং ১ জন, মঙ্গলবাড়িয়া ২ জন, কদমতলা ১ জন, জুগিয়া ২ জন, উদিবাড়ি ১ জন,  মোল্লাতেঘরিয়া ১ জন। ভেড়ামারায় আক্রান্ত ৫ জনের ঠিকানা পূর্ব  ভেড়ামারা ১ জন, উপজেলা পাড়া ১ জন, চর দামুড়দিয়া ১ জন, ১৬ দাগ ২ জন। দৌলতপুরে আক্রান্ত ৪ জনের ঠিকানা গারুড়া আদাবাড়িয়া ১ জন, দৌলতপুর ১ জন, আল্লারদরগা ১ জন ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১ জন। কুমারখালীতে আক্রান্ত ৭ জনের ঠিকানা কুমারখালী ১ জন, শেরকান্দি ২ জন, বাঁশগ্রাম ২ জন, শিলাইদহ ১ জন ও ছেউড়িয়ায় ১ জন। খোকসা উপজেলায় আক্রান্ত ২ জনের চকহরিপুর ১ জন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১ জন। নতুন আক্রান্তের মধ্যে পুরুষ ২৯ জন এবং মহিলা ৯ জন।কুষ্টিয়ায় এখন পর্যন্ত ৭৪৬ জন কোভিড রোগী সনাক্ত হল। (বহিরাগত বাদে)। উপজেলা ভিত্তিক রোগী সনাক্তের মধ্যে দৌলতপুর ৯৮, ভেড়ামারা ৮৭, মিরপুর ৪৪, সদর ৩৯৫, কুমারখালী ৯৫, খোকসা ২৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ রোগী ৫৪৬ এবং নারী ২০০ জন।  গতকাল পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ছাড় পেয়েছেন ৩৩৭ জন। উপজেলা ভিত্তিক সুস্থ ৩৩৫ জন (দৌলতপুর ৫০,  ভেড়ামারা ৫৭, মিরপুর ২১, সদর ১৫৫, কুমারখালী ৩৮, খোকসা ১৪)।  বহিরাগত সুস্থ ২ জন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ৩৬২ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩৪ জন। মৃত ১৩  জনের মধ্যে কুমারখালীর-৩, দৌলতপুরের-১, ভেড়ামারা-১,   ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ৮ জন। এর মধ্যে  পুরুষ ১২ জন ও মহিলা ১ জন। সর্বসাধারণের প্রতি অনুরোধ করে কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডাঃ এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম বলেন- আতংকিত না হয়ে সতর্কতা অবলম্বন করুন। ঘরে থাকুন, বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হবেন না। বার বার সাবান দিয়ে হাত ধৌত করুন। যত্রতত্র কফ, থুতু ফেলবেন না। হাঁচি, কাশি দেয়ার সময় টিস্যু  পেপার, রুমাল, বাহুর ভাঁজ ব্যবহার করুন ও ব্যবহৃত টিস্যু ঢাকনাযুক্ত ডাস্টবিনে ফেলুন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। একে অপরের থেকে কমপক্ষে ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রাখুন ও মাস্ক ব্যবহার করুন।

 

আরো খবর...