কুষ্টিয়ায় গৃহবধু ধর্ষণের দায়ে ৪জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের রায়

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া মডেল থানার একটি ধর্ষন মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায়  কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মো: মশিয়ার রহমান আসামীদের উপস্থিতিতে জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষনা করেন। ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন- সদর উপজেলার বটতৈল মধ্যপাড়া গ্রামের মোস্তফা প্রামানিকের ছেলে লখাই প্রামানিক ওরফে আজাদ (৫০), চৌড়হাস ফুলতলা গ্রামের আসাদুলের ছেলে শামীম হোসেন (৩২) কাথুলিয়া গ্রামের আনোয়ার বিশ^াসের ছেলে চন্নু বিশ^াস ও শফি মন্ডলের ছেলে নজরুল। আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৮ মে সন্ধায় সদর উপজেলার বটতৈল দক্ষিণপাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে ওই গৃহবধুকে কৌশলে ডেকে নিয়ে পাশর্^বর্তী পাট ক্ষেতে দলবেধে ধর্ষণের ঘটনার অভিযোগে কুষ্টিয়া মডেল থানায় ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু নিজেই বাদি হয়ে ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ৭ অক্টোবর ৬জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন পুলিশ। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের (ভারপ্রাপ্ত) সরকারী কৌশুলী সাইফুল ইসলাম বাপ্পী বলেন, গৃহবধু গ্যাং রেফএর ঘটনায় ছয়জনের বিরুদ্ধে চার্জগঠন ও স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে লখাই, শামীম, চুন্নু ও নজরুলের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমানিত হওয়ায় তাদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ প্রত্যেকের ৫০হাজার টাকা জরিমানা আদেশ এবং অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় লাহরী ও নাজিমকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

আরো খবর...