কুষ্টিয়ায় আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ১৪ কর্মকর্তা-কর্মচারীর ৮জন করোনা পজিটিভ

গ্রাহকদের ঝুঁকি কমাতে ব্যাংকটি লকডাউনের দাবী

নিজ সংবাদ ॥ আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক কুষ্টিয়া শাখার ১৪ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীর মধ্যে ৮জনই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সোমবার ২ জনের টেষ্টে পজিটিভ হয়েছে তারা সোমবার অফিস করেছেন। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদের স্বাস্থ্য সেবা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে এমতাবস্থায় প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর পত্র দিয়েছে বলে জানা যায়।

কুষ্টিয়া শহরের এনএসরোড থানা মোড় সংলগ্ন হারুন মার্কেটের দোতলায় অবস্থিত আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের কুষ্টিয়া শাখা। ব্যস্ততম এই ব্যাংকের ১৪জন কর্মচারীর মধ্যে ৮ কর্মকর্তা ও কর্মচারী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল সোমবার নতুন আক্রান্ত ২ জন কর্মকর্তা সারাদিন অফিস করেছেন। সোমবার আরো ২জন কর্মকর্তা করোনা টেষ্টের নমুনা কুষ্টিয়া ল্যাবে জমা দিয়েছেন বাকীরা আজ (মঙ্গলবার) জমা দিবেন বলে জানা যায়। ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক এনায়েত ফকির জানান- সোমবার অফিস টাইমে এ বিষয়টি জানানোর জন্য সিভিল সার্জন মহোদয়ের অফিসে ফোন দিলে সেখানকার একজন কর্মচারী জানান অফিসে এসে জানাতে হবে। কিন্তু স্বল্প সংখ্যক কর্মচারী নিয়ে ব্যাংক চালু রাখায় ব্যস্ততায় সিভিল সার্জন অফিসে স্বশরীরে উপস্থিত হতে পারেনি। দুপুরের দিকে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে মোবাইলে কথা বলে ব্যাংকের করোনা পরিস্থিতি জানালে তিনি লিখিত জানাতে বলেন। পরে লিখিত জানিয়েছি। তিনি জানান- সোমবার নতুন ২জনের পজিটিভসহ মোট ৮জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। প্রতিদিন ব্যাংকে প্রচুর গ্রাহক সেবা গ্রহন করতে আসছেন এ অবস্থায় ব্যাংক খোলা রেখে গ্রাহকদের জীবনের ঝুঁকিতে পড়তে পারে আশংকায় আমরা দুঃচিন্তায় আছি। ব্যাংকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- ব্যাংকের কর্মকর্তা ইব্রাহিম হোসেন, কুদরতি নুর তমা, রবিউল ইসলাম, শাফায়েত জামিল চৌধুরী, কর্মচারী সিয়াম হোসেন ও মোঃ সুজন আগেই আক্রান্ত হয়ে নিজ হোম কোয়ারেন্টেনে আছে। সোমবার  কর্মকর্তা আব্দুস ছাদেক ও তার স্ত্রী এবং কর্মকর্তা বখতিয়ার হোসেনের করোনা টেষ্টে পজিটিভ হয়েছে। এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুবায়ের হোসেন চৌধুরী জানান- আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক তাদের কর্মকর্তাদের করোনায় আক্রান্তের বিষয়ে একটি পত্র দিয়েছে আজ খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

আরো খবর...