কুষ্টিয়ার মিরপুরে অপারেশন থিয়েটারেই গৃহবধূর করুণ মৃত্যু

চিকিৎসক না হয়েও অপারেশন করেন পারভেজ

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়া মিরপুরের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন সাহাদালী ক্লিনিকে এক গৃহবধুর করুণ মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাত ১১টার দিকে অপারেশন থিয়েটারেই মুত্যু হয় ইভা (১ঁ৭) নামের ওই নারীর। এমবিবিএস ও সার্জন না হওয়ায় পারভেজ নামের এক ভুয়া চিকিৎসক অপারেশন করায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক আছেন ক্লিনিক মালিক ও কথিত ওই চিকিৎসক। জানা গেছে, মিরপুর উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের নান্টু মিয়ার স্ত্রী গর্ভবতি ইভা খাতুনকে ভর্তি করা হয় শাহাদালী ক্লিনিকে। রাতে তাকে অস্ত্রপচারের জন্য থিয়েটারে নেয়া হয়। রাত ১১টার দিকে চিকিৎসকের বদলে পারভেজ নামের এক ব্যক্তি এমবিবিএস পরিচয় দিয়ে তাকে সিজার করেন। ভুল অপারেশনে থিয়েটারেই ইভার মৃত্যু হয়। বিষয়টি বুঝতে পেরে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ দ্রুত কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করে। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থাণীয় লোকজন ক্লিনিক ঘেরাও করে। এ সময় পালিয়ে যায় ক্লিনিক মালিক নাজমূল ও মেজবাউল পালিয়ে যায়। ইভার স্বামীর নান্টুর অভিযোগ, পারভেজ একজন ভূয়া ও কথিত চিকিৎসক। সে এমবিবিএস চিকিৎসক পরিচয দিয়ে জেলার বিভিন্ন ক্লিনিকে অপারেশন করে। তার ভুলের কারনে আমার স্ত্রী মারা গেছে। বিষয়টির কঠোর ব্যবস্থা নেয়াসহ শাস্তির দাবি জানান। কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে থানায় কেউ অভিযোগ দিতে আসেনি। আসলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। স্থানীয়রা জানান, পারভেজ খুবই প্রভাবশালী। সে চিকিৎসক না হয়েও অপারেশন করে থাকে। থানা পুলিশ থেকে নেতাদের ম্যানেজ করে চলেন তিনি। এ কারনে বারবার এমন ঘটনা ঘটলেও তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়। কয়েক দিন আগেও পারভেজের ভুল অপারেশনে কুষ্টিয়ার কুমারখালী নোভা ক্লিনিকে এক  গৃহবধুু মারা যায়। কুষ্টিয়ার স্বাচীপ নেতা ডা. আমিনুল হক রতন বলেন, পারভেজ নামের কোন এমবিবিএস চিকিৎসক নেই জেলায়। সে গোপনে ভুয়া পরিচয় দিয়ে এসব কাজ করে। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো খবর...