কুষ্টিয়ার কবুরহাটে আখ ক্ষেতে আগুন ধরিয়ে অভিনব কায়দায় গরু চুরি

নিজ সংবাদ ॥ রাতে মাঠে আখের ক্ষেতে আগুন ধরিয়ে দিয়ে অভিনব কায়দায় কৃষকের গোয়াল ঘর থেকে গাভী-বাছুরসহ ৩টি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়াও ধান চুরি বিভিন্ন মালামালসহ একের পর চুরির ঘটনায় চোরের আতংকে এখন নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নের কবুরহাট কদমতলার এলাকাবাসী। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে কবুরহাট বটতৈল মধ্যবতি এলাকার বিলের মাঠে রাশিদুল ও সুমনের আখের ক্ষেতে আগুন ধরিয়ে দেয় সংঘবদ্ধ চোর। এ সময় আখ ক্ষেতে আগুন দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকে। এ অবস্থা দেখে এলাকার নারী-পুরুষ দৌড়ে মাঠের দিকে যায়। খবর দেয়া হয় ফায়ার সার্ভিসে। পরে কদমতলার কৃষক দাউদ ফকিরসহ এলাকাবাসীর চেষ্টায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মিরা  পৌঁছানোর আগেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এরই মাঝে সুমন ও রাশিদুলের দুই বিঘা জমির আখ পুড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ঘটনার কিছু সময় পর দাউদ ফকির বাড়ি ফিরে দেখে তার  গোয়ালে থাকা গাভী-বাছুরসহ ৩টি গরু নেই। এরপর আশপাশে খুঁজেও আর গরুগুলো পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসী জানান, প্রায় প্রতিরাতেই ওই এলাকায় ছোট বড় চুরির ঘটনা ঘটে চলেছে। গত বুধবার ওই এলাকার বেশ কয়েকটি পরিবার সাংবাদিক অর্পণ  মাহমুদের বাড়ির ছাদে কুমড়ো বড়ি শুকাতে দেয়। এছাড়া দু’জন বাসমতি ধান ওই ছাদে শুকাতে দেয়। কিন্তু বড়ি ও ধান রাতে  সেখানে রাখায় এবং সাংবাদিক বিশেষ কাজে ঢাকাতে চলে যায় ওই সুযোগেই রাতের কোন এক সময়  সেগুলো চুরি করে নিয়ে যায়। এভাবে একের পর এক এলাকায় ছোট বড় চুরির ঘটনা ঘটেই চলেছে। এলাকায় হঠাৎ করে মাদক বিক্রেতা ও মাদকাসক্তদের আনাগোনা বেড়ে যাওয়ায় চুরির ঘটনা ঘটছে বলে ধারণা এলাকাবাসীর। যে কারনে চোর আতংকে নির্ঘুম রাত কাটছে কবুরহাট কদমতলাবাসীর।

আরো খবর...