কুমারখালীতে লাইসেন্সকৃত মদের দোকানে মোবাইল কোর্ট

৬ জনের কারাদন্ড, দোকান বন্ধের আদেশ

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস সংক্রমণে প্রতিদিন বিশ্বব্যাপী প্রাণ হারাচ্ছেন হাজারো মানুষ। গত চব্বিশ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশেও ৩৫ জন আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। আর প্রাণঘাতি করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশে দেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ যখন হোম কোয়ারেন্টাইনে। তখন কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সরকারি নির্দেশনা  উপেক্ষা করে লাইসেন্সকৃত মদের দোকানে ওপেন- স্টাইলে বিক্রি করা হচ্ছে বাংলা মদ। আর দোকানের সামনেই প্রকাশ্যে মদ গিলছে মাদকসেবীরা। গতকাল সোমবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ মদের দোকানে হাজির হলেন, কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাজীবুল ইসলাম খান। এ সময় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে মদের দোকান খোলা রাখায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে দন্ডবিধি ১৮৬০ অনুযায়ী মদের দোকানের কর্মচারীসহ ৩ জনকে ৪৫ দিন এবং গণজমায়েত করে মদের দোকানের সামনে মদ পান করায় ৩ জনকে ৩০ দিনের কারাদন্ড প্রদান করেন। এ ছাড়াও সরকারি আদেশ অমান্য করায় মদের দোকানটি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মদের দোকানের আশপাশের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, এখানে কোন প্রকার নিয়মের তোয়াক্কা করা হয়না। সকল শ্রেণী মানুষের কাছেই প্রকাশ্যে মদ বিক্রি করা হয়। এমনকি অপ্রাপ্ত বয়স্করাও এখানে এসে মদপান করে এবং নিয়ে ফিরে যায়।

আরো খবর...