কুমারখালীতে আ’লীগের দুই গ্র“পের সংঘর্ষে ১ জন নিহত, আহত- ৫

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে আওয়ামী লীগের দুই গ্র“পের মুখোমুখি সংঘর্ষে আজম মুন্সী (৪৮) নামের একজন নিহত এবং ৫ জন আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলা বাগুলাট ইউনিয়নের বাঁশগ্রাম কারিগর পাড়ায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওই এলাকায় অতিরিক্ত সংখ্যক পুলিশ  মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামী লীগ সমর্থিত কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ সদস্য মফিজ গ্র“পের সঙ্গে আওয়ামী লীগ সমর্থিত আলী গ্র“পের বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধরাবাহিকতায় বুধবার সন্ধ্যায় মফিজ সমর্থিতদের সঙ্গে আলী সমর্থিতদের বাগবিতন্ডের এক পর্যায়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার জের ধরে বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে আলী সমর্থিতরা অতর্কিত আজম মুন্সীর বাড়িতে হামলা করে। এ সময় হামলাকারীরা কুপিয়ে আজম মুন্সী সহ পরিবারের ৫ জনকে আহত করে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকাল ৯টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজম মুন্সী মারা যায়। নিহত আজম মুন্সী বাঁশগ্রাম কারিগর পাড়া গ্রামের মৃত. আইয়ুব মুন্সীর ছেলে। এ ঘটনায় আহত অন্যান্যরা কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে, নিহত আজম মুন্সীর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে নেওয়া হয়েছে। এদিকে, আজম মুন্সীর মারা যাওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে প্রতিপক্ষের বাড়িতে ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট শুরু করে মফিজ সমর্থিতরা। স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানাগেছে, আলী সমর্থিতদের বাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর ও গবাদি পশুসহ মালামাল লুটপাট করা হয়েছে। কুমারখালী থানার অফিসার ওসি এ, কে এম মিজানুর রহমান দীর্ঘদিন যাবৎ ওই এলাকার মফিজ-আলী গ্র“পের বিরোধের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এই মুহুর্তে এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আরো খবর...