কাউন্সিলরের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আলমডাঙ্গা পৌর মেয়র হাসান কাদীর গনুর সংবাদ সম্মেলন

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা পৌরসভা মেয়রের অফিস কক্ষে পৌর মেয়র ও ৯টি ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ২ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর উপস্থিতিতে সংবাদ সম্মেলনে পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু বলেন-গত ৪ এপ্রিল তথাকথিত একটি ইউটিউব ও ফেসবুক আইডি থেকে আলমডাঙ্গা পৌরসভার সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর সামসাদ রানুর একটি ভিডিও বক্তব্য প্রকাশিত হয়। উক্ত বক্তব্যে উদ্দেশ্য প্রনোদিতভাবে সামসাদ রানু সম্পূর্ণ অসংলগ্ন, অসত্য, ভূয়া ও বানোয়াট তথ্য উপস্থাপন করেছে। বর্তমানে সারা বিশ্বের ন্যায় আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলাতেও করোনার ভয়াল থাবা হানা দিয়েছে। করোনার প্রাদূভার্বে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্থ দুস্থ ব্যক্তিদের সহায়তা গ্রদানের লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী খাদ্যশস্য বিতরনের নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই আলোকে আলমডাঙ্গা পৌরসভায় আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের তত্বাবধানে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা এর বিশেষ তদারকিতে উপজেলা নিবার্হী অফিসার কর্তৃক বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের ট্যাগ অফিসার নিযুক্ত করে আলমডাঙ্গা পৌরসভা এলাকার করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ দুস্থ ব্যক্তিদের তালিকা প্রস্তুত করে উপজেলা কৃষি অফিসার ও নিযুক্ত ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে চাউল বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। এবং সংশ্লিষ্ট ট্যাগ অফিসার নিজ হাতে প্রতিটি উপকারভোগীদের আঙ্গুলের টিপ সহি নিয়ে চাউল বিতরনের মাষ্টাররোল সম্পন্ন করেছেন। এখানে আমার বা আমার পরিষদের কোন কাউন্সিলর এককভাবে আট/দশ বস্তা চাউল নিয়ে যাওয়ার কোন সুযোগ নাই। এপ্রেক্ষিতে আলমডাঙ্গা পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর সামসাদ রানু নিজ স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে আমার এবং আলমডাঙ্গা পৌর পরিষদের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার লক্ষ্যে একটি কুচক্রি মহলের যোগসাজসে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে ভিডিও বানিয়ে তথাকথিত একটি ইউটিউব ও ফেসবুক পেজে আপলোড করে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছে। এছাড়া আজ (৬ এপ্রিল) ৪ টা ৩৮ মিনিটের সময় সামসাদ রানু তার নিজ ফেসবুক সাইটে আমার নাম ও ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিয়ার রহমান ফারুক এবং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাডঃ সালমুন আহম্মেদ ডন এর নাম উল্লেখ করে বিভিন্ন মানহানীকর মিথ্যা মন্তব্য উল্লেখ করে ষ্ট্যাটাস দিয়েছে। যাহা একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে গর্হিত অপরাধ। পৌর পরিষদের পক্ষ থেকে সামসাদ রানু’ র এই  ন্যাক্কারজনক কাজের জন্য তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং তদন্তপুর্বক  আইসিটি’র তথ্য প্রযুক্তি আইনের আওতায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর আলাল উদ্দিন, কাজী আলী আসগর সাচ্চু, জহুরুল ইসলাম স্বপন, সদরদ্দিন ভোলা, আব্দুল গাফ্ফার, মতিয়ার রহমান ফারুক, ফারুক হোসেন, মামুনর রশিদ হাসান, কল্পনা খাতুন, নুরজাহান বানু ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাডঃ সালমুন আহম্মেদ ডন।

আরো খবর...