করোনা শনাক্তের কিট তৈরির অনুমতি পেল গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

ঢাকা অফিস ॥ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস শনাক্ত করার জন্য গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের তৈরি করা কিট উৎপাদনের অনুমতি দিয়েছে সরকার। বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) দুপুর একটার কিছুক্ষণ পর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রকে কীট উৎপাদনের অনুমতি দেয় সরকার। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান ‘সরকার গতকাল সকাল নয়টায় অনুমতি দেওয়ার কথা ছিল। অনুমতি পেয়েছি। সরকারকে ধন্যবাদ।’ এর আগে বুধবার (১৮ মার্চ) গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র করোনা ভাইরাস সনাক্তকরণ কিট আবিষ্কারের ঘোষণা দেয় গণসাস্থ্য কেন্দ্র। প্রতিষ্ঠানটি থেকে দাবি করা হয়, স্বল্পমূল্যের ওই কিট দিয়ে মাত্র ১৫ মিনিটে করোনা শনাক্ত করা সম্ভব। গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, এই কিটের প্রত্যেকটির জন্য খরচ পড়বে ২০০ টাকার মতো। ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, এটা তৈরি, স্পেশাল প্যাকিং ও কুরিয়ারসহ যাবতীয় প্রসেসিংয়ের জন্য ৪ থেকে ৫ দিন সময় লাগবে। তারপর তা নিয়ে আমরা বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় কাজ করে দশ দিনের মধ্যে নমুনা কিট তৈরি করতে পারব। আর এক মাসের মধ্যে অন্তত ১০ হাজার কিট বাজারে সরবরাহ করতে পারব। প্রথম মাসে ১০ হাজার পরের মাস থেকে ১ লাখ কিট সরবরাহ করতে পারব। যা বাংলাদেশের জন্য পর্যাপ্ত হবে। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আরো বলেন, দেশে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার কিটের যে সঙ্কট আছে তা এই আবিষ্কারে দূর হবে বলে আমরা আশা করি। তবে সরকারের উচিত এমন নিয়ম করা যাতে জনগণ মাত্র ২০০ টাকায় করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করতে পারে। জানা গেছে, এই কিট উৎপাদনে কাজ করেছেন ড. বিজন কুমার শীল, ড. নিহাদ আদনান, ড. মোহাম্মদ জমির উদ্দিন ও ড. ফিরোজ আহমেদ।

আরো খবর...