করোনায় অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের অবস্থা ভালো – মূখ্য সচিব

 

ঢাকা অফিস ॥ করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও নিয়ন্ত্রণসহ সব দিক থেকে পৃথিবীর অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের অবস্থা ভালো বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব আহমেদ কায়কাউস। আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার খুবই কম। দিন দিন যা সংক্রমিত হচ্ছে তাও ঘনবসতি ও জীবন যাপনের তাগিদে বের হওয়ার জন্য অসাবধানতার কারণে হচ্ছে। গতকাল শনিবার পটুয়াখালী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারের সচিব ও পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের চেয়ারম্যান সামছুর রহমান ও বরিশাল বিভাগের নবাগত বিভাগীয় কমিশনার অভিতাভ সরকার। এসময় বক্তব্য রাখেন- পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান, শেখ হাসিনা সেনানিবাসের কমান্ডিং কর্মকর্তা শাহরিয়ার, সিভিল সার্জন ডা. জাহাঙ্গীর আলম শিপন, হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক ডা. মতিউর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক ভিপি আবদুল মান্নান, পৌর মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড গোলাম সরোয়ারসহ অন্যান্য সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা ও গণমাধ্যম কর্মীরা। প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব আহমেদ কায়কাউস আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে কঠোর হয়ে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা, নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যসেবা এবং খাদ্য উৎপাদনসহ সব দিকে সমান দৃষ্টি দিতে হবে। পটুয়াখালীতে আরটি পিসিআর ল্যাব, সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্ট ও সদর হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশের সব জায়গায় সুনজর দিয়েছেন। সবদিকে তিনি দৃষ্টি রেখে গুরুত্বের দিক বিবেচনা করে আরটি পিসিআর ল্যাব, সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্ট ও সদর হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপনের প্রক্রিয়া চলমান রেখেছেন। তিনি বলেন, পটুয়াখালী জেলায়ও দ্রুত আরটি পিসিআর ল্যাব, সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্ট ও সদর হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপন করা হবে, তবে সময়ের অপেক্ষা মাত্র। তিনি বলেন, সব কিছুর সঙ্গে দক্ষ জনবলের অভাব থাকায় কিছুটা ধীর গতি হচ্ছে। জেলাবাসীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে তিনি বলেন, পটুয়াখালী জেলা বর্তমানে বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ জেলার মধ্যে অন্যতম, এ জেলায় মেগা মেগা প্রকল্পের সফল বাস্তবায়ন ও চলমান থাকায় সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সবার দৃষ্টি রয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে সবাইকে সচেতন ও সর্বোচ্চ সর্তকতা অবলম্বন করে দৈনন্দিন প্রয়োজন ও কাজ সম্পন্ন করার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। সভায় জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ জেলার বর্তমান করোনা পরিস্থিতি, আপডেট ও কর্মপরিকল্পনা সমূহ মাল্টিমিডিয়ায় উপস্থাপন করেন।

আরো খবর...