করোনাভাইরাস ঃ দেশের সব খেলাধুলা বন্ধ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ করোনাভাইরাসের আতঙ্কে গোটা বিশ্বের ক্রীড়াঙ্গনে নেমে এসেছে স্থবিরতা। সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে বাংলাদেশের ঘরোয়া সব খেলাধুলা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ফুটবলের চলতি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ, ক্রিকেটের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগসহ দেশের সব খেলা তাই বন্ধ থাকবে আপাতত। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে সোমবার সভা শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল জানান, অন্তত ৩১ মার্চ পর্যন্ত দেশের সব খেলা বন্ধ থাকবে। সন্ধ্যায় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন জানিয়েছে, পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত থাকবে প্রিমিয়ার লিগের খেলা। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) অবশ্য আপাতত কেবল ১৮ ও ১৯ মার্চের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের খেলা স্থগিত করেছে। করোনাভাইরাসের কারণে মুজিববর্ষের জাতীয় ও ক্রীড়াঙ্গনের নানা আয়োজন স্থগিত করার ধারাবাহিকতায়ই সব খেলা বন্ধ করার এই সিদ্ধান্ত, জানালেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। “করোনাভাইরাসের কারণে বৈশ্বিকভাবে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। সমস্যার কারণে আমরা জাতীয় ইভেন্টগুলো সব স্থগিত করেছি। মুজিববর্ষের জাতীয় আয়োজনগুলো পুনর্বিন্যাস করেছি আমরা। সেখানে ক্রীড়াঙ্গনের যে কর্মসূচি ছিল, বাংলাদেশ গেমস ছিল, ক্রিকেট বোর্ডের কনসার্ট ছিল, টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ছিল এশিয়া একাদশ ও অবশিষ্ট বিশ্ব একাদশের, বার্সেলোনার ক্লাব পর্যায়ে একটি ম্যাচ ছিল। আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ ছিল। সবই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা স্থানান্তর করেছি।” “এখন ঘরোয়া যে খেলাগুলি আছে, ৩১ মার্চ পর্যন্ত সেসব বন্ধ থাকবে। পরবর্তীতে অবস্থা দেখে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এপ্রিল মাসে ফেডারেশনগুলো এসব আয়োজন করার চেষ্টা করবে। পরিস্থিতি ভালো না হলে পরে সেগুলি মে, জুন বা জুলাই মাসে নিয়ে যাবে।”

 

আরো খবর...