আ.লীগ নেতা  গোস্বামী দূর্গাপুর ইউপি চেয়ারম্যান দবিরসহ চারজন কারাগারে

কুষ্টিয়ায় ১০ টাকা কেজি চাল আত্মসাত মামলা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর (১০ টাকা কেজি দরে চাল) বরাদ্দকৃত চাল আতœসাতের মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা ইউপি সদস্যসহ চারজনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টায় কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক মোঃ মহসিন হাসান তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে আসামীরা আদালতে উপস্থিত হয়ে আইনজীবির মাধ্যমে জামিন আবেদন করেন। বিচারক তাদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

আসামীরা হলেন- গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও একই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দবির উদ্দিন বিশ্বাস, একই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মারুফুল ইসলাম, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চালের ডিলার মন্টু হোসেন এবং ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সরোয়ার হোসেন।

আদালত ও মামলা সূত্র জানায়, চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন বিশ^াস তাঁর সহযোগীদের যোগসাজসে বিগত দীর্ঘ চার বছর ধরে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচী প্রকল্পের ১০টাকা কেজি দরের সরকারী চাল উত্তোলন ও তা তালিকাভুক্তদের না দিয়ে আত্মসাত করেন। এ সংক্রান্ত সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচার হলে কুষ্টিয়ার আদালতের দৃষ্টিগোচর হয়। পরে ঐ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে গত ১৯ এপ্রিল কুষ্টিয়ার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সেলিনা খাতুন এর আদালত কর্তৃক ইস্যুকৃত ক্রিমিন্যাল মিসকেস নং ০১/২০২০ ফৌ:কা:বি: ১৯০(১)(সি) ধারায় মামলা হয়।

মামলাটি তদন্ত করে ২ জুনের মধ্যে আদালতের প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ দেন আদালত। এই সময়ের মধ্যে পুলিশ আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়।

কুষ্টিয়ার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের সহকারী কৌঁসুলি (এপিপি) সুমিত্রা বিশ্বাস বলেন, গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়নে সরকারী বরাদ্ধকৃত চাল আত্মসাতের ঘটনায় পেনাল কোড ১৮৬০ এর ৪০৬, ৪২০, ৩৪ ধারায় চেয়ারম্যানসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। আসামীরা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারক তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাতে প্রেরণের আদেশ দেন।

আরো খবর...