আড়াই দিনে হেরে হোয়াইটওয়াশড ভারত

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ওয়েলিংটনের পর ক্রাইস্টচার্চেও পাত্তা পেল না ভারত। ব্যাট-বলের অসাধারণ পারফরম্যান্সে নিউ জিল্যান্ড পেল দারুণ জয়। আড়াই দিনে হেরে হোয়াইটওয়াশের তেতো স্বাদ পেল বিরাট কোহলির দল। সিরিজের শেষ টেস্ট নিউ জিল্যান্ড জিতেছে ৭ উইকেটে। সোমবার ম্যাচের তৃতীয় দিনে শেষ ইনিংসে কিউইদের লক্ষ্য ছিল ১৩২ রানের। দুই ওপেনারের ফিফটিতে সেটি তারা ছুঁয়ে ফেলে দ্বিতীয় সেশনেই। কেন উইলিয়ামসনের দল দুই ম্যাচের সিরিজ জিতল ২-০ ব্যবধানে। পাশাপাশি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে উঠে গেল দুই নম্বরে। প্রথম টেস্ট তারা জিতেছিল ১০ উইকেটে। টি-টোয়েন্টি সিরিজে নিউ জিল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করে সফর শুরু করেছিল ভারত। ওয়ানডে ও টেস্টে সিরিজে সেই স্বাদ সফরকারীদের ফিরিয়ে দিল স্বাগতিকরা। বোলারদের নৈপুণ্যে প্রথম ইনিংসে ভারত পেয়েছিল ৭ রানের ছোট্ট লিড। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ম্যাচ হারল বড় ব্যবধানে। পুরো সিরিজেই ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন অধিনায়ক কোহলি। হ্যাগলি ওভালে ৬ উইকেটে ৯০ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করেছিল ভারত। এদিন তাদের ইনিংস টিকেছে কেবল ৪৭ মিনিট। শেষ ৪ উইকেটে যোগ করতে পারে তারা ৩৪ রান। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান হনুমা বিহারি ও রিশাব পান্ত ফেরেন প্রথম চার ওভারের মধ্যে। দুজনের কেউই যেতে পারেননি দুই অঙ্কে। বিহারির পর মোহাম্মদ শামিকে ফেরান টিম সাউদি। জাসপ্রিত বুমরাহর রান আউটে শেষ হয় সফরকারীদের ইনিংস। একটি করে চার ও ছক্কায় ১৬ রানে অপরাজিত ছিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। আগের দিন ভারতকে কাঁপিয়ে দেওয়া ট্রেন্ট বোল্ট নেন ৪ উইকেট। সাউদির শিকার ৩টি। ছোট লক্ষ্য তাড়ায় টম ল্যাথাম ও টম ব্লান্ডেলের সাবধানী ব্যাটিংয়ে নিউ জিল্যান্ড পায় ভালো সূচনা। লাঞ্চের আগে দুজন তোলেন ৪৬ রান। বিরতির পর তাদের জুটি ছাড়ায় শতরান। নিউ জিল্যান্ড এগিয়ে যায় জয়ের পথে। ফিফটি করে ল্যাথাম থামলে ভাঙে ১০৩ রানের জুটি। ৭৪ বলে ১০ চারে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান করেন ৫২ রান। অধিনায়ক উইলিয়ামসন দ্বিতীয় ইনিংসেও টিকেছেন কেবল ৮ বল। জয় থেকে ১২ রান দূরে থাকতে বিদায় নেন ব্লান্ডেল। ১১৩ বলে ৮ চার ও এক ছক্কায় ডানহাতি ব্যাটসম্যান করেন ৫৫ রান। ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ কোহলি শেষ দিকে হাতে তুলে নিয়েছিলেন বল। এক ওভার বোলিং করে হজম করেন একটি বাউন্ডারি। প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট ও ব্যাটিংয়ে ৪৯ রানের জন্য ম্যাচ সেরা হয়েছেন কাইল জেমিসন। দুই ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন সাউদি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ভারত ১ম ইনিংস: ২৪২। নিউ জিল্যান্ড ১ম ইনিংস: ২৩৫। ভারত ২য় ইনিংস: (আগের দিন ৯০/৬) ৪৬ ওভারে ১২৪ (পৃথ্বী ১৪, মায়াঙ্ক ৩, পুজারা ২৪, কোহলি ১৪, রাহানে ৯, উমেশ ১, বিহারি ৯, পান্ত ৪, জাদেজা ১৬*, শামি ৫, বুমরাহ ৪; সাউদি ১১-২-৩৬-৩, বোল্ট ১৪-৪-২৮-৪, জেমিসন ৮-৪-১৮-০, ডি গ্র্যান্ডহোম ৫-৩-৩-১, ওয়াগনার ৮-১-১৮-১)। নিউ জিল্যান্ড ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ১৩২) ৩৬ ওভারে ১৩২/৩ (ল্যাথাম ৫২, ব্লান্ডেল ৫৫, উইলিয়ামসন ৫, টেইলর ৫*, নিকোলস ৫*; বুমরাহ ১৩-২-৩৯-২, উমেশ ১৪-৩-৪৫-১, শামি ৩-১-১১-০, জাদেজা ৫-০-২৪-০, কোহলি ১-০-৪-০)। ফল: নিউ জিল্যান্ড ৭ উইকেটে জয়ী। সিরিজ: দুই ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে জয়ী নিউ জিল্যান্ড। প্লেয়ার অব দা ম্যাচ: কাইল জেমিসন

প্লেয়ার অব দা সিরিজ: টিম সাউদি।

 

আরো খবর...