আবারও ইউভেন্তুসের নায়ক দিবালা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পাওলো দিবালার দুই মিনিটে পার্থক্য গড়ে দেওয়ার স্মৃতি এখনও তরতাজা। এবার সেরি আয় গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দলের নায়ক হলেন এই আর্জেন্টাইন তারকা। এসি মিলানকে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধার করেছে ইউভেন্তুস। ইউভেন্তুস স্টেডিয়ামে রোববার রাতে লিগের ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নেমে পার্থক্য গড়ে দেন দিবালা। গত ২২ অক্টোবর ইউরোপ সেরার মঞ্চে লোকোমোতিভ মস্কোর বিপক্ষে পিছিয়ে পড়ার পর তার দুই মিনিটে করা দুই গোলে জয় পেয়েছিল ইউভেন্তুস। ম্যাচের শুরুর দিকে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণেও আধিপত্য করা ইউভেন্তুস প্রথম ভালো সুযোগও পেয়েছিল। কিন্তু লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে হতাশ করেন গনসালো হিগুয়াইন। ধীরে ধীরে নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে পাল্টা আক্রমণে মনোযোগ দেয় মিলান। প্রথমার্ধের তুলনামূলক ভালো সুযোগও তৈরি করেছিল তারা। কিন্তু গোলমুখে বল পেয়েও লক্ষ্যভ্রষ্ট হেড করেন পোলিশ ফরোয়ার্ড পিয়াতেক। এরপর ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লুকাস পাকেতার হেড দারুণ নৈপুণ্যে ঠেকিয়ে দেন ইউভেন্তুস গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি। দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে একরকম আচমকাই দলের সেরা তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে তুলে কোচ নামান দিবালাকে। মাঠে নেমেই দলকে এগিয়ে নেওয়ার দুরূহ সুযোগ পেয়েছিলেন এই ফরোয়ার্ড। কিন্তু তার স্লাইডিং শট পাশের জালে লাগে। পরের মিনিটে পিয়াতেকের বুলেট গতির শট দারুণ ক্ষিপ্রতায় রুখে জাল অক্ষত রাখেন ইউভেন্তুস গোলরক্ষক।

৭৭তম মিনিটে দুই আর্জেন্টাইনের দারুণ বোঝাপড়ায় কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়ে যায় দিবালা। স্বদেশি হিগুয়াইনের দারুণ পাস পেয়ে প্রথম টোকায় ডি-বক্সে বাড়িয়ে কোনাকুনি শটে ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি। আগের দিন হেল্লাস ভেরোনোকে ২-১ গোলে হারিয়ে ১২ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছিল ইন্টার মিলান। ১০ জয় ও দুই ড্রয়ে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ফিরল গত আটবারের চ্যাম্পিয়ন ইউভেন্তুস। দুইয়ে নেমে গেছে ইন্টার। তৃতীয় স্থানে থাকা লাৎসিওর পয়েন্ট ২৪। সমান ম্যাচে সপ্তম হারের স্বাদ পাওয়া মিলান ১৩ পয়েন্ট নিয়ে আছে চতুর্দশ স্থানে। একসময়ের ঐতিহ্যবাহী দলটি জিতেছে মোটে চার ম্যাচে, ড্র একটিতে।

আরো খবর...