আইসিসির ভবিষ্যত প্রধান গাঙ্গুলি ঃ গাওয়ার

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ দল পরিচালনায় ছিলেন দুর্দান্ত, বদলে দিয়েছিলেন মানসিকতা। বিসিসিআই প্রধানের দায়িত্বও সামলাচ্ছেন দৃঢ় হাতে। দক্ষ প্রশাসকের সব গুণই আছে সৌরভ গাঙ্গুলির। ভারতের সাবেক অধিনায়কের রাজনৈতিক দক্ষতাও চোখে পড়েছে ডেভিড গাওয়ারের। সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক আইসিসির ভবিষ্যৎ প্রধান হিসেবে দেখছেন গাঙ্গুলিকে। গত অক্টোবরে দশ মাসের জন্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতির দায়িত্ব নেন সৌরভ গাঙ্গুলি। নতুন দায়িত্বের শুরুটা হয়েছে বেশ ভালো। বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে শক্তিশালী বোর্ডের একটি বিসিসিআই। প্রায় দেড়শ কোটি মানুষের দেশে ক্রিকেট ভক্তের অভাব নেই। ক্রিকেট-পাগল এমন একটি দেশের বোর্ড প্রধানের দায়িত্ব পালন করা কতটা কঠিন অনুমান করতে পারছেন গাওয়ার। গ্লোফ্যান্সের একটি আয়োজনে ইংলিশ সাবেক অধিনায়ক বন্দনায় ভাসিয়েছেন গাঙ্গুলিকে। “এত বছরে আমি একটা জিনিস শিখেছি সেটা হলো, বিসিসিআই পরিচালনার জন্য অনেক কিছু থাকতে হয়। তার (গাঙ্গুলির) যে খ্যাতি আছে সেটা শুরুর জন্য ভালো তবে বোর্ড চালাতে দক্ষ রাজনীতিক হতে হবে। বিভিন্ন ধরনের অনেক কিছু সামাল দেওয়ার সামর্থ্য থাকতে হবে।” “বিসিসিআই প্রধান হিসেবে সম্ভাব্য সবচেয়ে কঠিন কাজটিই করতে হচ্ছে গাঙ্গুলিকে। তবে আমি বলবো, এখন পর্যন্ত লক্ষণ খুব ভালো। সে সবার কথা শুনছে, নিজের মত দিচ্ছে এবং খুব সুন্দরভাবে সেরাটা বের করে আনছে।” ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের সভাপতি হিসেবে পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করার পর বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব নেন গাঙ্গুলি। ক্রিকেট প্রশাসনে নিজের ছাপ ফেলতে পেরেছেন তিনি। গাওয়ার তার মাঝে দেখছেন বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সব দক্ষতা। “গাঙ্গুলি মানুষ হিসেবে সত্যিই অসাধারণ এবং প্রয়োজনীয় রাজনৈতিক দক্ষতাও আছে। ংকেউ যদি বিসিসিআই প্রধান হিসেবে ভালো কাজ করে, তাহলে ভবিষ্যতের কথা কে বলতে পারে?” “আইসিসি প্রধান হওয়াটা সম্মানের। সেখানে হয়তো অনেক কিছু করা সম্ভব। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে র‌্যাঙ্কিংয়ের দিকে তাকান, শক্তি কোন দিকে যাচ্ছে দেখুন। বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব অবশ্যই বেশি বড়।”

আরো খবর...