যুক্তরাষ্ট্রের আলবামায় বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ৭

এনএনবি \ যুক্তরাষ্ট্রের আলবামায় একটি ক্ষুদ্র বিমান বিধ্বস্ত হলে ৭ আরোহীর সবাই নিহত হয়েছে। নিহতদের সবাই একই পরিবারের সদস্য। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এভিয়েশন এডমিনিস্ট্রেশন এ কথা জানিয়েছে। গতকাল সোমবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, ডানদিকের ইঞ্জিন বিকল হয়ে গেলে সেসনা সি ৪২১ বিমানের পাইলট ডেমোপলিস বিমানটি বন্দরে অবতরণ করানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তার চেষ্টা ব্যর্থ হলে বন্দরের দু’মাইলের মধ্যে বিমানটি একটি দুর্গম জঙ্গলে ভেঙে পড়ে। সেন্ট লুই থেকে ফ্লোরিডায় যাবার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে রয়েছেন এক মা, পিতা ও তাদের পাঁচ সন্তান। সন্তানদের বয়স ২ থেকে ১০ বছরের মধ্যে। রোববার বেলা সোয়া ২টায় উদ্ধারকারীরা বিমানটির ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পায়।

মনমোহন-সোনিয়া বৈঠক মন্ত্রিসভা রদবদল আসন্ন

আইএনবি \ ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর মধ্যে সোমবার এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সম্ভাব্য পুনর্গঠন নিয়ে যে গুজব উঠেছে তা আরো জোরালো হয়েছে। চলতি সপ্তাহের যে কোন সময়ে মন্ত্রিসভা পুনর্গঠিত হতে পারে এমন ইঙ্গিতের মধ্যে গত কয়েক দিনে দু’নেতার মাঝে এটা চতুর্থ বৈঠক। তবে বিভিন্ন সূত্র জানায়, আগামীকাল বিকেলে এই পুনর্গঠন হতে পারে। নতুন মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কিন্তু এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলা হয়নি। তৃণমূল কংগ্রেস ও কংগ্রেস থেকে নবাগতসহ ১০ থেকে ১২ জন নতুন মন্ত্রিসভায় স্থান পেতে পারেন।

গতকাল হরতালের প্রভাব ছিল না

নিজ সংবাদ \ ইসলামী ও সমমনা ১২ দল আহূত ৩০ ঘন্টা হরতালের দ্বিতীয় দিন গতকাল সোমবার কুষ্টিয়া জেলার  কোথাও তেমন প্রভাব ছিল না। জেলার সর্বত্র পুলিশের সতর্ক অবস্থানে থাকায় রাজপথে হরতালের পক্ষে উল্লেখযোগ্য কোন তৎপরতা ছিল না।

সংবাদ ব্রিফিংয়ে মির্জা ফখরুল সরকার দমন-নির্যাতনে উন্মাত্ত হয়ে উঠেছে

এনএনবি \ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দমন-নির্যাতনে সরকার উন্মত্ত হয়ে উঠেছে। গতকাল সোমবার বিকালে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুককে পুলিশ জামিনের জন্য হাইকোর্টে যেতে না দেওয়ার নিন্দা জানিয়ে এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, জামিনের জন্য হাইকোর্টে যেতে গেলে ফারকের অ্যাম্বুলেন্স হাসপাতাল থেকে বের হতে দেওয়া হয়নি। হরতালে কীভাবে বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মী ও আলেম-উলামাদের ওপর পুলিশ নির্যাতন চালিয়েছে। সরকার দমন-নির্যাতনে উন্মাত্ত হয়ে উঠেছে। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ ব্রিফিং হয়। রাজধানীর দারুস সালাম মহিলা দলের সদস্য নাজমা কবির, স্বামী হুমায়ুন কবিরসহ তার দুই সন্তানের ওপর ‘পুলিশি নির্যাতনের’ প্রতিবাদে এই সংবাদ ব্রিফিং হয়। বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীর ডাকা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের প্রথম দিন ৬ জুলাই শেরে বাংলা নগরে সংসদ সদস্যসের বাসভবনের সামনে পুলিশের লাঠিপেটায় আহত হন জয়নুল আবদিন। গতকাল সোমবার সকালে ফারুকের পক্ষে জামিনের আবেদন করেন মাহবুব উদ্দিন খোকন। আদালত বিকালে জামিনের শুনানির জন্য সময় নির্ধারণ করে। শুনানিতে বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপের পক্ষে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ ও খন্দকার মাহবুব হোসেন অংশ নেন। পরে মওদুদ সাংবাদিকদের বলেন, জামিন আবেদন আদালতে দেওয়ার পর আদালত ৪টায় শুনানির সময় নির্ধারণ করে। এরই মধ্যে হাসপাতালে যোগাযোগ করে ফারুককে নিয়ে আসার জন্য বলা হলেও পুলিশি বাধার কারণে তা সম্ভব হয়নি। মির্জা ফখরুল বলেন, বিরোধী দলের প্রধান হুইপের অবস্থা ভালো নয়। তিনি ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। চিকিৎসকরা তাকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠাতে বলেছে। স্পিকারও তাকে বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছেন।  এরকম অবস্থায় ফারুকের বিরুদ্ধে পুলিশের দায়ের করা একটি মামলার জামিন নিতে অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে হাইকোর্টে নিয়ে যেতে চাইলে পুলিশ যেতে দেয়নি। আমরা এর নিন্দা জানাই। বিরোধী দলের প্রধান হুইপের সাংবিধানিক অধিকার রক্ষার জোর দাবিও জানান তিনি। মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা বিএনপির ডাকা গত ৬ ও ৭ জুলাই ৪৮ ঘণ্টা হরতালের আগের দিন মহিলা দলের নাজমা কবিরসহ তার পরিবারের সদস্যদের ওপর দারুস সালাম থানা পুলিশের ‘নির্যাতনের চিত্র’ তুলে ধরে বলেন, এটা সব নির্মমতাকে হার মানিয়েছে। নাজমা কবিরসহ তার স্বামী ও পুত্র-কন্যাকে থানা আটক করে এই নির্যাতন চালানো হয়েছে। তিনি বলেন, নাজমার হাতের একটি নখ উঠিয়ে ফেলা হয়েছে। স্কুলপড়ুয়া কন্যা ও পুত্রকে বেদম প্রহার করা হয়েছে মা-বাবার সামনে। একইভাবে ছেলে-মেয়ের সামনে মা-বাবার ওপর নির্যাতন হয়েছে। শিরিন সুলতানা দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট পুলিশদের বিচার দাবি করেন। সংবাদ ব্রিফিংয়ে মহানগর সদস্য সচিব আবদুস সালাম, মহিলা দলের সভানেত্রী নূরে আরা সাফা, সহসভাপতি রাবেয়া সিরাজ, মহানগর সভাপতি সুলতানা আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা ডিউকের জামিন আদেশ স্থগিতাদেশের মেয়াদ এক সপ্তাহ বৃদ্ধি

এনএনবি \ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ভাগনে সাইফুল ইসলাম ওরফে ডিউকের জামিন মঞ্জুর করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ স্থগিতাদেশের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। একই সঙ্গে আদালত এক দিনের জন্য শুনানি মুলতবি করেছেন।

ডিউকের পক্ষে আইনজীবীর সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বে আট বিচারপতির বেঞ্চ শুনানি মুলতবি করেন।

ডিউকের আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, মামলার সম্পূরক অভিযোগপত্র দেওয়ার আগে হাইকোর্ট ডিউকের জামিন মঞ্জুর করেছিলেন। হাইকোর্টের আদেশ আপিল বিভাগে স্থগিত হয়। এরই মধ্যে সম্পূরক অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। আমরা আদালতে সময় চেয়েছি। আদালত শুনানি মুলতবি করেছেন।

এর আগে সকালে রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম মামলা পরিচালনা করেন। তবে ডিউকের পক্ষে অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড সৈয়দ মাহাবুবুর রহমান সময় আবেদন জানান।

গত ৪ মে হাইকোর্ট ডিউকের জামিন মঞ্জুর করেন। এতে স্থগিতাদেশ চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করলে ৮ মে চেম্বার বিচারপতি হাইকোর্টের আদেশের কার্যকারিতা স্থগিত করে বিষয়টি নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন। এরই ধারাবাহিকতায় বিষয়টি শুনানির জন্য গতকাল কার্যতালিকায় আসে।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার জনসভায় গ্রেনেড হামলায় ২২ জন নিহত হয়। আহত হয় কয়েক’শ লোক।

২১ আগস্টের এ ঘটনায় দু’টি মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ৩০ জন নতুন আসামির বিরুদ্ধে ৩ জুলাই তদন্তকারী সংস্থা সিআইডি ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে সম্পূরক অভিযোগপত্র জমা দেয়।

সম্পূরক অভিযোগপত্রে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবেক সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ, বিএনপির সাংসদ শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ, প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী ও একান্ত সচিব সাইফুল ইসলাম ওরফে ডিউকের নামও আছে।

জামিন আবেদনের শুনানি আজ ফারুককে হাজির করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

এনএনবি \ বিএনপি ও জামায়াতের ডাকা টানা ৪৮ ঘন্টা হরতাল চলাকালে পুলিশের পিটুনিতে আহত, বর্তমানে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুককে জামিন নিতে আদালতে যেতে দেয়নি পুলিশ। এ প্রেক্ষিতে আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় যে কোন পরিস্থিতিতে তাকে আদালতে হাজির করতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকে (ডিএমপি) নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি আনোয়ারুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে গতকাল সোমবার দুপুরে ফারুকের পক্ষে জামিন আবেদন করা হয়। এ প্রেক্ষিতে আদালত ফারুকের উপস্থিতিতে বিকেল ৪টায় শুনানির সময় নির্ধারণ করেন।

কিন্তু পুলিশের বাধার মুখে হাসপাতাল থেকে আদালতে আসতে পারেননি জয়নুল আবদিন ফারুক। বিষয়টি আদালতের নজরে আনা হলে, শুনানির সময় পিছিয়ে ফারুককে যে কোনভাবে আদালতে হাজির করতে ডিএমপি কমিশনারকে নির্দেশ দেয়া হয়।

আদালতের আদেশের পর ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ অপেক্ষমান সাংবাদিকদের বলেন, ফারুকের মামলার বিষয়ে আমরা আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করেছি। এ প্রেক্ষিতে ফারুকের উপস্থিতিতে বিকেল ৪টায় শুনানির সময় নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু পুলিশ ফারুককে আসতে বাধা দিয়ে হাসপাতাল ঘিরে রেখেছে। বিষয়টি আদালতকে জানানো হলে শুনানি পিছিয়ে দিয়ে ফারুককে যে কোন পরিস্থিতিতে আজ মঙ্গলবার আদালতে হাজির করার জন্য ঢাকা মেট্রো পলিটন পুলিশ কমিশনারকে নির্দেশ দেয়া হয়।

আদালতে ফারুকের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৬-৭ জুলাই বিএনপি-জামায়াত আহূত টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের প্রথম দিন সকালে সংসদের সামনে পুলিশের বেধড়ক লাঠিপেটায় আহত হন বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ ফারুক। আহত অবস্থায় তাকে গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের আইসিইউ’তে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এদিকে এ ঘটনায় পুলিশের কর্তব্যকাজে বাধা দেওয়া, বল প্রয়োগ ও মারধরের অভিযোগে ওই দিনই শেরেবাংলা নগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজমুল করিম বাদি হয়ে ফারুককে প্রধান আসামি করে কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের (নং-১০ (৭) ১১) করেন। মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশকে রোববার এ মামলা তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে ফারুককে মারধর ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার হারুন অর রশীদ ও মোহাম্মদপুর বিভাগের সহকারী কমিশনার বিপ্লব সরকারের নামোল্লেখসহ পুলিশের অজ্ঞাতনামা আরও ৩০ সদস্যকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর-৪ আসনের বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য এবিএম আশরাফ উদ্দিন নিজান বাদি হয়ে রোববার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে এই মামলাটি দায়ের করেন। আদালত বাদির জবানবন্দি গ্রহণ করেন এবং ডিএমপি কমিশনারকে ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আদেশ দিয়েছেন। একই সাথে আগামী ১০ আগস্ট এ বিষয়ে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মন্ত্রিসভায় সন্ত্রাস বিরোধী আইন সংশোধনের খসড়া অনুমোদন

আইএনবি \ মন্ত্রিসভা দেশের অখন্ডতা ও সার্বভৌমত্ব বিপন্ন করতে পারে এমন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বন্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইন সংশোধনের খসড়া-২০১১ নীতিগতভাবে অনুমোদন করেছে। সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভা কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। উল্লেখ্য, ২০০৯ সালে বিস্ফোরক ও অস্ত্র রাখা বা বহন করা বা সন্ত্রাসের উদ্দেশ্যে অর্থ লেনদেন বন্ধ এবং সন্ত্রাস দমনের লক্ষ্যে সন্ত্রাস বিরোধী আইন প্রণয়ন করা হয়। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব আবুল কালাম আজাদ সাংবাদিকদের জানান, সংশোধনীতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী। এ দেশের এক ইঞ্চি জমিও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানোর জন্য ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। তিনি বলেন, সন্ত্রাস বিরোধী প্রচলিত আইনকে যুগোপযোগী এবং আরো কার্যকর করার জন্য এই আইনের সংশোধনীর খসড়া মন্ত্রিসভা অনুমোদন করে। এছাড়া আজকের মন্ত্রিসভায় মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন-২০১১-এর খসড়া নীতিমালা এবং দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১১-এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন করা হয়। বৈঠকে ব্যক্তিমালিকানায় বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আন্তর্জাতিক বিমান, সমুদ্র ও স্থলবন্দরসমূহে শুল্কমুক্ত বিপণি স্থাপনের অনুমতিও দেয়া হয়। মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনের খসড়ায় বলা হয়েছে, মানবপাচার জঘন্যতম অপরাধ হলেও তা দমনের জন্য এযাবৎ কোন আইন ছিল না। মানবপাচার আইনের খসড়ায় শাস্তির বিধান রেখে বলা হয়েছে, কেউ মানবপাচার করেলে যাবজ্জীবন কারাদন্ড অথবা ৫ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবে। নারী-শিশু পাচার আইনে অবশ্য মৃত্যুদন্ডের বিধান রয়েছে। ২০০৮ সালের দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো (নিয়ন্ত্রণ) আইন সংশোধন করে নির্দিষ্ট স্থানে পোস্টার বা দেয়ালে লিখনের কথা বলা হয়েছে। এই আইনে বলা হয়েছে, পোস্টার ও দেয়ালে লেখার জন্য নির্ধারিত হারে ফি দিতে হবে। ব্যক্তিমালিকানায় বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অবস্থিত আন্তর্জাতিক বিমান, সমুদ্র ও স্থলবন্দরে শুল্কমুক্ত বিপণি স্থাপনের অনুমতি প্রদান করে বলা হয়েছে, ইতোপূর্বে এসব স্থানে সরকারের উদ্যোগে শুল্কমুক্ত বিপণি বিতান খোলার অনুমতি ছিল। এখন এই আইনের সংশোধনীর ফলে ব্যক্তিমালিকানায়ও এসব স্থানে শুল্কমুক্ত বিপণি খোলা যাবে। বৈঠকে আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা আয়োজিত নিউক্লিয়ার নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়। বৈঠকে মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাগণ, প্রতিমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, সংশ্লিষ্ট সচিবগণ ও প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপির ছাতার নিচে আসছে ইসলামী দলগুলো

এনএনবি \ জামায়াতের পর এবার ডানপন্থী ইসলামী দলগুলো একে একে বিএনপির ছাতার নিচে আসতে শুরু করেছে। সরকারবিরোধী আন্দোলনে  জাতীয়তাবাদী শক্তির যেমন ঐক্য চাচ্ছে বিএনপি তেমনী এ সুযোগে ইসলামী দলগুলোও বিএনপির মতো বড় দলের সাথে সখ্যতা গড়তে কৌশলে যে যার মতো করে বিএনপির সাথে যোগাযোগ করছে। এ নিয়ে ইসলামী দলগুলোর মধ্যে চলছে নানা টানাপোড়েন। জানা গেছে, জামায়াতকে সহ্য করতে পারছে না চরমোনাই পীর সৈয়দ রেজাউল করিম ও তার দল।  সূত্রমতে, গত ৬-৭ জুলাই  বিএনপি ও জামায়াতের টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের প্রতি ১২টি সমমনা দল সমর্থন দিয়েছিল। একইভাবে গত রোববার থেকে ধর্মভিত্তিক দলগুলোর টানা ৩০ ঘণ্টার হরতালের প্রতিও সমর্থন ব্যক্ত করেছে বিএনপি ও জামায়াত। এর আগে গত ৪ এপ্রিল নারীনীতির কয়েকটি ধারাকে কোরআনবিরোধী দাবি করে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটির আমির মুফতি ফজলুল হক আমিনী হরতাল ডাকেন। তখন খালেদা জিয়া সৌদি আরবে ছিলেন। সেখান থেকে দলীয় নেতাদের নির্দেশ দেওয়ার পর বিএনপি নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে আমিনীর হরতালের প্রতি সমর্থন জানান। এ ছাড়া চারদলীয় জোটের শরিক দল হিসেবে জামায়াত সব সময় বিএনপিকে আন্দোলনের জন্য প্রভাবিত করে আসছে। জামায়াতের পাঁচ শীর্ষ নেতাকে গ্রেফতারের পর জামায়াত নেতারা বিএনপির সাথে যোগাযোগা করে হরতালের কর্মসুচী দিতে পারেনি। বিএনপি কৌশলগত কারনে জামায়াতকে এড়িয়ে চলছিল। কিন্তু রাজননিতক বাস্তবতায় বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকার বহাল রাখার ইস্যুতে রাজপথের আন্দোলন শুরু করলে জামায়াত নিজে থেকে এগিয়ে আসে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আন্দোলন বেগবান হলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ইস্যু বিলম্ব হতে পারে- এ আশা থেকেই বিএনপিকে আন্দোলনের পথে নামাচ্ছে জামায়াত। আর একই কৌশল থেকে ধর্মভিত্তিক দলগুলোকে ইন্ধন দিচ্ছে বিএনপি ও জামায়াত। এর আগে ১৯৯৪ সালের ৩০ জুন বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনের বিচারের দাবিতে ইসলামী দলগুলো একবার হরতাল পালন করেছিল। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সমমনা দলগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক রেখেই আন্দোলন বেগবান করতে চায় বিএনপি। অতীতে সরকারবিরোধী আন্দোলনের সময় বিএনপির সঙ্গে চারদলীয় ঐক্যজোটসহ সমমনা দলগুলো ছিল। এবারের আন্দোলনেও শরিক দলসহ তারা থাকবে। সম্প্রতি দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে জাতীয়তাবাদি শক্তির ঐক্য গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, সংবিধান সংশোধন ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিলের প্রতিবাদে আমরা আন্দোলন করছি। এ ছাড়া দেশের অধিকাংশ মানুষ ধর্মপ্রাণ, ধর্মীয় মূল্যবোধে বিশ্বাসী। তাই ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এলে আমরা বসে থাকতে পারি না। এ জন্যই সমর্থন করি। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচাল করতেই জামায়াতের সঙ্গে আন্দোলন কি না- এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগে থেকেই বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের জোট আছে। এ জন্যই আওয়ামী লীগ আমাদেরকে বলছে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ইস্যু বানচাল করতে মাঠে নেমেছে বিএনপি। আমরাও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চাই। কিন্তু সরকার গায়ের জোরে বিচারের পাঁয়তারা চালাচ্ছে। জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলাম বলেন, ধর্মভিত্তিক সব দলের সঙ্গে তেমন একটা যোগাযোগ নেই। তবে কিছু ব্যক্তি ও দলের সঙ্গে যোগাযোগ আছে। দেশে ৫০-৬০টির মতো ইসলাম ধর্মভিত্তিক দল আছে। এত দিন তারা নিজস্ব আঙ্গিকে বিভিন্ন ইস্যুতে পৃথক কর্মসূচি পালন করলেও এখন হরতালের মতো কঠিন কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নেমেছে। দিন দিন তাদের সমর্থনের পাল্লা ভারী হচ্ছে। এখন বিএনপি-জামায়াতের সমমনা দলের সংখ্যা ২০। সমমনা দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে আলাপ করলে তাঁরা জানান, বিএনপি ও জামায়াতের সমর্থন পেয়ে তাঁরা খুশি। নৈতিক কারণে তারা নিজে থেকেই হরতালে সমর্থন দিয়েছে। এ ছাড়া জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি), বাংলাদেশ ন্যাপ ও ন্যাপ ভাসানী অনেক আগে থেকেই বিএনপি ও সম্মিলিত ওলামা মাশায়েখ পরিষদ জামায়াতের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে আসছে। সংবিধানে বিসমিল্লাহর বিকৃতি এবং ধর্মনিরপেক্ষতা ও সমাজতন্ত্র সংযোজন বিষয়ে ইসলামী সমমনা দলগুলোর সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছে তারা। ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী বলেন, সারা দেশ থেকে আলেম-ওলামা ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা হরতালে সমর্থন জানিয়েছেন। ইসলামী দলগুলো সাধারণত রাজপথে খুব একটা আন্দোলনে নামে না। ১২ দলের সমন্বয়ক বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির মাওলানা আবদুর রব ইউসুফী বলেন, আমাদের এ হরতাল ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নয়। ক্ষমতার পরিবর্তনের জন্যও নয়। আমাদের এ হরতাল জান্নাতে যাওয়ার এবং জাহান্নাম থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য। তাই এ হরতালে বিএনপি ও জামায়াত নৈতিক কারণেই সমর্থন দিয়েছে। বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমির মাওলানা আহমদুল্লাহ আশরাফ বলেছেন, সরকার যদি রমজান মাসেও ইসলামবিরোধী কোনো কর্মকান্ড করে, তাহলে ইসলামী দলগুলো ঘরে বসে থাকবে না। প্রয়োজনে রমজান মাসেও হরতাল দেওয়া হবে। আমরা এখন থেকে দেশ ও ইসলাম রক্ষায় ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে থাকব। ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা ইউনুস আহমদ  বলেন, ইসলামী দলগুলো কারো সঙ্গে লেজুড়ভিত্তিক হয়ে আন্দোলন করছে না। বিএনপি ও জামায়াতের সঙ্গে আমাদের কোনো কথা হয়নি। গোপন বৈঠকও হয়নি। হরতালে তারা নৈতিক কারণেই সমর্থন দিয়েছে। তিনি বলেন, মুসলমানদের ইমানের প্রথম শর্তই হচ্ছে মহান আল্লাহর ওপর আস্থা ও বিশ্বাস। সংবিধানে সরকার সেখানেই আঘাত করেছে। ৯০ শতাংশ মুসলমানের দেশে এ অবস্থায় ইসলামী দলগুলো ঘরে বসে থাকতে পারে না। তাই এ হরতাল সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরানোর জন্য নয়, ইমান রক্ষার জন্য।

১৯জুলাই বারো শরীফ দরবারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী

নিজ সংবাদ \  কুষ্টিয়া কোর্টপাড়স্থ বারো শরীফ দরবারের ৩৭তম অভিষেক উদযাপন উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহন করা হয়েছে। বারো শরীফ দরবারের ইমাম হযরত শাহ্ সুফী মীর মাসুদ হেলার (রঃ) ১৯৭১খৃষ্টাব্দের  ২৫আগষ্ট ১৬শাবান সোমবার এই বারো শরীফ দরবার প্রাপ্ত হয়ে প্রতিষ্ঠিত করেন বারো শরীফ দরবার ও জামে মসজিদ। ৩৭তম অভিষেক উদযাপন উপলক্ষে এবার বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহন করা হয়েছে। আগামী ১৯জুলাই মঙ্গলবার ভোর রাত ৩টায় খাস মিলাদ শরীফ,বাদ ফজর রওজা পাক জিয়ারত,বাদ জোহর কোরান খানি ও বাদ এশা মিলাদ মাহফিল ও প্রবন্ধ পাঠ। বারো শরীফ দরবারের সকল অনুষ্ঠানে সকল ধর্মপ্রান মুসল্লীদের উপস্থিত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের আলোচনায় বনমালী সুশিক্ষিত জাতি গঠনে জনসংখ্যা সীমিত রাখতে হবে

আরিফ মেহমুদ \ কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিক বলেছেন, একটি সুখি সমৃদ্ধ দেশ গড়তে সীমিত জনসংখ্যা গুরুত্বপূর্ণ ভূমি পালন করে। অধিক জনসংখ্যা উন্নয়নে সহায়ক না হয়ে বাসস্থান, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সহ নানান সমস্যার কারণ হয়ে দেখা দেয়। সুশিক্ষিত জাতি গঠনে জনসংখ্যা সীমিত রাখতে হবে। সীমিত জনসংখ্যা রাখার জন্য পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মাঠ কর্মীরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তবে বাংলাদেশের মেয়েরা পরিকল্পিত পরিবার সম্পর্কে সমক্য জ্ঞান বা শিক্ষার আলো পাবে তখনই এদেশে পরিকল্পিত পরিবার গঠনের পথ সুগম হবে। জনসংখ্যা সীমিত রাখতে এবং দুটি সমত্মানের অধিক নয়, একটি হলে ভাল হয় এই শ্লোগানকে বাসত্মবায়নে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের পাশাপাশি অন্যান্য বিভাগেরও অগ্রণী ভূমিকা ও রাজনৈতিক অঙ্গীকার প্রয়োজন রয়েছে। ৭০০ কোটি মানুষের বিশ্বে, পরিকল্পিত পরিবার দেশ গড়ার অঙ্গীর এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে গতকাল সোমবার সকালে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা অডিটোরিয়ামে জেলা প্রশাসন ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের আয়োজনে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আলোচনা সভার আগে জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিকের নেতৃত্বে কুষ্টিয়া কালেক্টরেট ভবন থেকে এক বণার্ঢ্য র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এসে শেষ হয়। জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডাঃ জেসমিন আখতারের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম, জেলা সিভিল সার্জর ডাঃ জামাল উদ্দিন মোল্লা ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশাররফ হুসাইন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সার্বিক উপস্থাপনা ও পরিচালনা করেন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের হিসাব রক্ষক এস এম মর্তজা।

কুষ্টিয়ায় উল্টো রথযাত্রা উৎসব পালিত

সুজন কর্মকার \ গতকাল সোমবার কুষ্টিয়ায় উল্টো রথযাত্রা উৎসব পালিত হয়েছে। ব্যাপক উৎসব আমেজের মধ্যে দিয়ে বিভিন্ন বাদ্যবাজনাসহ উল্টো রথযাত্রা উৎসব পালিত হয়। বড়বাজার সাবর্বজনীন পূঁজা মন্দির প্রাঙ্গন থেকে বিকেল ৫ টায় উল্টো রথযাত্রা শুরু হয়। এন এস রোড হয়ে শ্রী শ্রী গোপীনাথ জিউর মন্দির প্রাঙ্গনে এসে যাত্রা মেষ হয়। রথের মাথায় ছিল গোপীনাথের বিগ্রহ। বিগ্রহটি লক্ষ্য করে শত শত ভক্তরা পান-চিনিসহ বিভিন্ন ফুল দিয়ে ভক্তি জানায়। বাংলাদেশ পূঁজা উদযাপন পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি এ্যাডঃ অনূপ কুমার নন্দী রথটানার নেতৃত্ব দেন। এ সময় পূঁজা উদযাপন পরিষদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, শ্রী শ্রী গোপীনাথ জিউর মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ, শহরের অন্যান্য মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দসহ শত শত ভক্তবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। কুষ্টিয়ার এ রথযাত্রাকে ঘিরে বড়বাজার থেকে মোয়াজ্জেম ষ্টোরের পাশে সিটি গোল্ড পর্যমত্ম বসেছিল বিশাল মেলা। মেলায় দুরদুরামত্ম থেকে আসা প্রচুর লোক সমাগমও ঘটেছিল। এদিকে মেলায় বিভিন্ন মনোহারী সামগ্রী, খেলনা, কসমেটিকস, বই, কাঠের আসবাব পত্র, লোহার তৈরী কামারী শিল্প, বাঁশ ও বেতের তৈরী শিল্প পণ্যের সমাগম ঘটে। এছাড়া পাপড়, খই, জিলাপী, চটপটি, ফুসকা, খাগড়াই, কদমাসহ বিভিন্ন মুখরোচক খাবারের পসরা সাঁজিয়ে বসেচিল দোকানীরা। রথের মেলা চলাকালীন সময় প্রশাসনের কঠোর নজরদারী থাকায় বড় ধরণের কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

গাংনীতে নোটসহ জালটাকা ব্যবসায়ী গ্রেফতার

রাজিবুল হক \ গতকাল সোমবার দুপুর ১ টার দিকে গাংনীতে অভিযান চালিয়ে জালটাকা সহ শহিদুল (৩০) নামের এক জালটাকা ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে মেহেরপুর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। মেহেরপুর গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তা এস আনিছুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার দুপুর ১ টার দিকে মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার হাড়াভাঙ্গা গ্রামে অভিযান চালিয়ে মৃত আঃ মজিদের ছেলে জালটাকা ব্যবসায়ী শহিদুলকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার শরীরে তল্লাশী করে ১১ টি ১ হাজার টাকার জাল নোট উদ্ধার করা হয়েছে।

হরতালে সচল ছিল ইবি ক্যাম্পাস

১০ ও ১১ জুলাই দেশব্যাপী হরতাল চলাকালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছিল শামত্ম। কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি ক্যাম্পাসে। হরতালের পক্ষে বা বিপক্ষে কোন দলের মিছিল, মিটিং  হয়নি। ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও  প্রশাসনিক কার্যক্রম চলছে যথা নিয়মে। ভাইস চ্যান্সেলর বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ড. এম আলাউদ্দিন নির্দিষ্ট সময়ে ক্যাম্পাসে উপস্থিত হন এবং স্বাভাবিক গতিতে কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এছাড়াও প্রশাসনের উদ্ধর্তন কর্মকর্তা সহ অধিকাংশ কর্মকর্তা-কর্মচারী অফিসে উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মেহেরপুরে ২টি বোমা উদ্ধার

মেহেরপুর অফিস \ মেহেরপুর শহরের প্রাণকেন্দ্র গড় পুকুরের পূর্ব দিকে পৌর রেজিঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশর্ব থেকে গতকাল সোমবার দুপুরে  ২টি বোমা উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি হাসান হাফিজুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে ঐ স্কুলের ভিতর প্রবেশ করে পরিত্যত্ত অবস্থায় বোমা দুটি উদ্ধার করা হয়েছে। কি কারণে বোমা দুটি রাখা হয়েছিল তা জানাতে পারেনি পুলিশ।

কুষ্টিয়ার নয়া জেলা প্রশাসককে রাইফেল ক্লাবের সংবর্ধনা

কুষ্টিয়া রাইফেল ক্লাবের পক্ষ থেকে কুষ্টিয়ার নবাগত জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিককে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে রাইফেল ক্লাবের হল রুমে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এ সময় ক্লাবের সদস্যরা ফুলের তোড়া দিয়ে জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিককে অভিনন্দন জানান। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ড. মলি­ক আনোয়ার হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা, পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী, রাইফেল ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এস এম আনসার আলী, যুগ্ম সম্পাদক মনসুর চৌধুরী, রেজানুর রহমান খান চৌধুরী, সহ-সভাপতি নুরুল হুদা দলু, কোষাধ্যক্ষ এস এম কাদেরী শাকিল, নির্বাহী সদস্য আবদুর রশীদ চৌধুরী, মিজানুর রহমান লাকি, জহুরুল হক চৌধুরী রনজু, সামসুল আগা, গোলাম মহিউদ্দিন, আতিয়ুর রহমান ও তৌফিক আহম্মদ তাপস। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিক বলেন, ক্লাবের উন্নয়নে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। এ ক্লাবের সুনাম বাংলাদেশের সব জায়গাতে রয়েছে। তাই এ সুনাম ধরে রাখতে ক্লাবের সদস্যদের সততার সাথে ক্লাব পরিচালনা করতে হবে। তিনি ক্লাবের উন্নয়নে সব ধরণের সাহায্য সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। তিনি ক্লাবে প্রবেশ করার পর ক্লাব চত্বর পরিদর্শন করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে নয়া জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিক সাংবাদিকরা প্রেসক্লাবে গেলে আমিও যাবো, তারা না গেলে বেরিয়ে আসবো

নিজ সংবাদ \ কুষ্টিয়ায় নবাগত জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিক বলেছেন, প্রেসক্লাব সাংবাদিকদের প্রতিষ্ঠান। সেখানে ভিন্ন পেশার মানুষের কোন স্থান নেই। প্রেসক্লাবের সকল কর্মকান্ডে  সাংবাদিকরা থাকবে এটা তাদের অধিকার। অধিকাংশ সাংবাদিকরা প্রেসক্লাবের বাইরে থাকবে এটা হতে পারে না। সকল পেশাজীবি সাংবাদিকরা প্রেসক্লাবে গেলে আমি যাবো তা না হলে তাদের সাথে আমিও বেরিয়ে আসবো। গতকাল বিকেলে কুষ্টিয়া রাইফেলস্ ক্লাবে সর্বসত্মরের সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

জানা যায়, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবে কতিপয় ব্যক্তিরা ক্ষমতা কুক্ষিগত করে কোন আয়-ব্যয়ের হিসাব দাখিল না করায় জেলার সার্বক্ষণিক কর্মরত ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া, জাতীয় দৈনিক, সংবাদ সংস্থা ও স্থানীয় দৈনিকের প্রায় ৫০ জন সাংবাদিক নির্বাচিত পরিষদের কাছে হিসেব-নিকেশ দাবী করে। এতে কতিপয় ব্যক্তিরা তাতে বাদ সাধে। তারা এ জেলার অধিকাংশ সাংবাদিকদের বাদ দিয়ে শহরের কিছু সন্ত্রাসীদের প্রেসক্লাবের অবৈধভাবে সদস্যপদ দিয়ে প্রেসক্লাবের গঠনতান্ত্রিক পরিপন্থী কাজ করে চলেছে। এ অবস্থায় জেলার সার্বক্ষণিকভাবে পেশাদার সাংবাদিকরা নবাগত জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিকের সাথে মত বিনিময়ের জন্য কুষ্টিয়া রাইফেলস্ ক্লাবে সমবেত হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিক সাংবাদিকদের কাছে জেলার বিভিন্ন খোঁজ খবর নেন। এর পর সাংবাদিকরা তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন তার কাছে। এ সময় জেলা প্রশাসক বনমালী ভৌমিক সাংবাদিকদের আশ্বসত্ম করে বলেন, প্রেসক্লাব সাংবাদিকদের নিজস্ব প্রতিষ্ঠান। তারা বাইরে থাকবে কেন? প্রেসক্লাবে যাওয়া সাংবাদিকদের ন্যার্য অধিকার। তিনি বলেন, এ জেলার সকল সাংবাদিকরা প্রেসক্লাবে গেলে আমিও যাবো তা না হলে তাদের সাথে আমিও বেরিয়ে আসবো। এ সময় তার কথায় সাংবাদিকরা আশসত্ম হয়। মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া পৌর মেয়র আনোয়ার আলী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা, রাইফেলস্ ক্লাবের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন পেশাজীবির মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় দৈনিক সংবাদের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি মিজানুর রহমান লাকী, আন্দোলনের বাজার পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু, এনটিভি র কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ফারুক আহমেদ পিনু, এনএনবি’র কুষ্টিয়া প্রতিনিধি রেজাউল করিম, বাংলাভিশন, বাসস ও ভোরের কাগজের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি নুর আলম দুলাল, দৈনিক নয়াদিগমেত্মর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আ ফ ম নুরুল কাদের, বাংলাবাজার পত্রিকার কুষ্টিয়া প্রতিনিধি এ এইচ এম আরিফ, দৈনিক সমকালের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি সাজ্জাদ রানা, দেশ টিভি ও বাংলানিউজ টুয়েন্টি ফর ডট কমের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি শরীফ বিশ্বাস, মানবজমিনের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি দেলওয়ার হোসেন মানিক, দৈনিক ডেসটিনির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি এ এম জুবায়েদ রিপন, একুশে টেলিভিশনের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি জহুরুল ইসলাম, দিনের খবরের সম্পাদক ফেরদোস রিয়াজ জিল্লু, প্রথম আলোর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান, আরটিভি কুষ্টিয়া প্রতিনিধি শেখ হাসান বেলাল, শীর্ষ নিউজের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আল আলা মওদুদ, দিনের খবর পত্রিকার উপদেষ্টা সম্পাদক লুৎফর রহমান কুমার, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক হাসান ইসতিয়াক রাজিব, কুষ্টিয়ার খবরের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, দৈনিক সুত্রপাতের সম্পাদক ডাঃ মোকাদ্দেস হোসেন সেলিম, উপদেষ্টা সম্পাদক এম জি কিবরিয়া, দৈনিক দেশতথ্যের নির্বাহী সম্পাদক মোমেছুর রহমান, বার্তা সম্পাদক শামীম রানা, দৈনিক বসুন্ধরার প্রতিনিধি তরিকুল ইসলাম মিন্টু, সময় টেলিভিশনের প্রতিনিধি এস,এম রাশেদ, সাংবাদিক আরিফুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু

আইএনবি \ আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে হালনাগাদ ভোটার তালিকার পাইলট প্রকল্পের কাজ শুরু করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ প্রকল্পের মাধ্যমে ভোটারযোগ্য ব্যক্তিদের তালিকাভুক্তি করা হবে। দেশের ৪টি এলাকাতে পরীক্ষামূলকভাবে এই কার্যক্রম চলবে। আর এই পাইলট প্রকল্পের কাজ সফলভাবে শেষ করে আগামী অক্টোবর থেকে এই কার্যক্রম পুরোদমে শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, নির্বাচন কমিশন সারাদেশে হালনাগাদের উদ্দেশ্যে এ পাইলট প্রকল্পের উদ্যোগ নিয়েছে। আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে একটি স্বচ্ছ ভোটার তালিকা প্রণয়ন করায় এর মূল উদ্দেশ্য। বিদ্যমান ভোটার তালিকায় দ্বৈত ভোটার, তথ্য গোপন করে ভোটার হওয়া, মায়ানমারের রোহিঙ্গা ও ভারতের বিচ্ছিন্নবাদী সংগঠন উলফার সদস্যরা আত্মপরিচয় গোপন করে ভোটার পরিচয়পত্র নিয়ে অবৈধভাবে বসবাস করছে। এসব সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে দেশব্যাপী একযোগে হালনাগাদ ভোটার তালিকার কার্যক্রম শুরু করবে ইসি। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ভোটারদের তথ্য সংগ্রহের কাজ চলবে ১৬ থেকে ১৮ জুলাই এবং ভোটার নিবন্ধনের (রেজিস্ট্রেশন) কাজ ১৯ জুলাই থেকে শুরু হবে। দুটি এলাকাতে একই প্রক্রিয়ায় কাজ চলবে। এরপর রাজধানীর গুলশানের ১৮ নং ওয়ার্ড ও কক্সবাজারের পালংখালীতে দ্বিতীয় ধাপে পাইলট প্রকল্পের কাজ শুরু করবে ইসি।

এ বিষয়ে সাখাওয়াত হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে গাজীপুরের কালিগঞ্জ ও নওগাঁর পত্নীতলায় পাইলট প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। এরপর রাজধানীর গুলশানের ১৮ নং ওয়ার্ড এবং কক্সবাজারের পালংখালীতে এ কার্যক্রম চলবে। তিনি বলেন, ভোটার তালিকা আইন অনুযায়ী প্রতি বছরের ২ থেকে ৩১ জানুয়ারি যেসব নাগরিকের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হবে তাকে ছবিযুক্ত ভোটার তালিকায় অমত্মর্ভুক্তির বিধান রয়েছে। কিন্তু গত ২ বছর ধরে বিভিন্ন নির্বাচনের কারণে এই আইনের ব্যত্যয় হয়ে আসছে। একারণে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে যাদের বয়স ১৬ এবং এর উপরে তাদেরকে প্রাথমিক তালিকায় অমত্মর্ভূক্ত করা হবে। যাদের বয়স ১৮ এবং এর উপরে হবে কেবলমাত্র তাদেরকে চূড়ামত্ম ভোটার তালিকায় অমত্মর্ভূক্ত করা হবে। উল্লেখ্য ২০০৬ সালের জুনে গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভায় পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে দেশব্যাপী ছবিযুক্ত ভোটার তালিকা প্রণয়নের কাজ শুরু হয়। এখন পর্যমত্ম দেশে প্রায় সাড়ে ৮ কোটি ভোটার তালিকার্ভুক্ত হয়েছে। ছবিযুক্ত ভোটার পরিচয়পত্র প্রণয়নের পর দেশে এটা দ্বিতীয় দফা পাইলট প্রকল্পের পর হালনাগাদ শুরু করতে যাচ্ছে কমিশন।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা ছাত্রলীগ অফিস জ্বালিয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা

নিজ সংবাদ \ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা ছাত্রলীগ কার্যালয় পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। গতকাল সোমবার গভীর রাতে কুষ্টিয়া শহরের সাদ্দাম বাজার মোড়স্থ কার্যালয়ে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে সম্পূর্নরূপে ভস্মিভূত হয় অফিসটি। আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়লে আলোর ঝলকানিতে পূর্ব মজমপুর সহ আশ-পাশ এলাকার মানুষের ঘুম ভাঙ্গলেও প্রথমে জানতে পারে কুষ্টিয়া সার্কিট হাউসের নাইট গার্ড। সে সাকিট হাউসের টেলিফোন থেকে ফায়ার সার্ভিস অফিসে অগ্নিকান্ডের কথা জানিয়ে ফোন করে। ততক্ষনে সব শেষ! অফিসের আসবাবপত্র সহ পার্শে ফুট পথের মানিকের চায়ের দোকানটির প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল পুড়ে ভস্মিভূত হয়েছে। কিভাবে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে কেউ বলতে না পারলেও ছাত্রলীগ অফিস পুড়িয়েছে অন্য কেউ নয় জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের কতিপয় নেতা’র নেতৃত্বে পোড়ানো হয়েছে বলে দাবী করেছেন সদর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আবু তৈয়ব বাদশা। তিনি জানান বেশ কিছুদিন ধরে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সঙ্গে ছাত্রলীগের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। স্বেছাসেবকলীগের নেতাকর্মীরা তাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা এমনকি অফিসেও হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। আর এই হামলার নেপথ্য নায়ক ছিলেন জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন সবুজ ও সভাপতি আক্তারুজ্জামান লাবু। তবে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন সবুজ অফিস পোড়ানোর বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি জানান এধরণের ঘটনার সাথে স্বেচ্ছাসেবকলীগের কোন নেতাকর্মী জড়িত নন।

ডিএসইতে দেড় হাজার কোটি টাকা লেনদেন

এনএনবি \ ঢাকার পুঁজিবাজারে চাঙাভাব অব্যাহত রয়েছে। আগের দিনের চেয়ে কম হলেও লেনদেনের পরিমাণ ছিলো দেড় হাজার কোটি টাকা। বেড়েছে সূচকও। প্রয়োজনীয় সংখ্যক ব্রোকারেস হাউস লেনদেনে অংশ নেওয়ায় আধাবেলা হরতালের মধ্যে নির্ধারিত সময় গতকাল সোমবার সকাল ১১টায়ই ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সচল হয়। ডিএসইর অধীন ২১৭টি ব্রোকারেস হাউসের মধ্যে সকাল ১১টার মধ্যে লেনদেনে অংশ নেওয়ার জন্য লগইন করে ২১৫টি। নিয়ম অনুযায়ী, এক-তৃতীয়াংশ ব্রোকারেস হাউস লগইন করলেই লেনদেন শুরু হয়। গতকাল মোট ১ হাজার ৫৮১ কোটি টাকার শেয়ার হাতবদল হয়েছে। বিএনপির মিত্র বলে পরিচিত ১১টি দলের ডাকা হরতালের মধ্যে রোববার ডিএসইতে ৬ মাসে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়। সেদিন লেনদেনের পরিমাণ ছিলো ১ হাজার ৬৪৬ কোটি টাকা। সাধারণ সূচক ২০ পয়েন্ট বেড়ে ৬৪৫৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে সূচক টানা বাড়ছে। রোববার যোগ হয়েছিলো ১২৫ পয়েন্ট। সম্প্রতি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী সূচক সাড়ে ৬ হাজারের মধ্যে রাখার ওপর জোর দিয়েছিলেন। সূচক এখন তা ছুঁইছুঁই। ডিএসইতে ১৭৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৭৪টির, ৯টির দাম অপরিবর্তিত ছিলো।

শবেবরাতে সরকারি ছুটি ১৮ জুলাই

এনএনবি \ শবেবরাতের সরকারি ছুটির তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। নতুন সূচি অনুযায়ী আগামী ১৭ জুলাইয়ের পরিবর্তে ১৮ জুলাই সরকারি ছুটি থাকবে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল সোমবার এ ছুটির তারিখ পরিবর্তন করা হয়। এতে বলা হয়, গত ২ জুলাই জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৭ জুলাই দিবাগত রাতে শব-ই-বরাত পালিত হবে। এজন্য ১৭ জুলাইয়ের পরিবর্তে পরদিন ১৮ জুলাই সোমবার সরকারি ছুটি থাকবে। তবে নিজস্ব আইন-কানুন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত অথবা চাকরি অত্যাবশ্যকীয় ঘোষিত অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে এ ঘোষণা কার্যকরা হবে না বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। এসব অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান জনস্বার্থ বিবেচনা করে নিজস্ব নিয়মে ছুটি ঘোষণা করবে বলে আদেশে বলা হয়। সরকারি ছুটির নির্ধারিত তালিকা অনুযায়ী ১৭ জুলাই শবেবরাতের ছুটি কার্যকর হওয়ার কথা ছিলো।

খেলা দেখা শেষে আর স্কুলে ফেরা হয়নি চট্টগ্রামে ট্রাক খাদে পড়ে ৪৩ ছাত্রের মর্মামিত্মক মৃত্যু

আইএনবি \ ট্রাকভরে দূরন্ত কিশোরেরা গিয়েছিল বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা দেখতে। খেলা দেখা শেষে তাদের আর স্কুলে ফেরা হয়নি। মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনা স্তব্ধ করে দিয়েছে সব কিছু। এপর্যন্ত উদ্ধার হয়েছে ৪৩ শিশু-কিশোর ছাত্রের লাশ। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশংকা করছে স্থানীয় সূত্রগুলো। হতাহতেরা চট্রগ্রামস্থ মিরসরাইয়ের আবুতোরাব হাই স্কুল এবং আঞ্জুমান নেসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র। তাদের অধিকাংশই স্কুল ছাত্র হলেও কিছু কলেজ ছাত্রও রয়েছে। চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার আবু তোরাব-বড়তাকিয়া সড়কের মাঝামাঝি স্থানে সোমবার দুপুর সোয়া একটার দিকে ছাত্রদের বহনকারী ট্রাক উল্টে ডোবায় পড়ে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। উদ্ধারকাজ শেষে রাত ৮টায় আবু  তোরাব মিয়ামী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নিহত ৪২ ছাত্রের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সারিবদ্ধ এতো মানুষের জানাজা এরআগে কখনো মিরসরাইয়ের মানুষ দেখেনি। জানাজায় হাজার হাজার মানুষ যোগ  দেয়। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী ডা. মো. আফছারুল আমীন, চট্টগ্রাম বিভাগের ডিআইজি নওশের আলী, এসপি, বিভাগীয় কমিশনার এ সময় উপস্থিত ছিলেন। জানাজায় অংশ নেয়া নিহতের স্বজনদের আহাজারিতে পুরো এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, দুপুরে মিরসরাইয়ের আবু তোরাব-বড়তাকিয়া সড়কের মাঝামাঝি স্থানে একটি সেতুর কাছে একটি ট্রাক (চট্ট মেট্রো ড-১১-০৩৩৭) উল্টে যায়। এ মর্মামিত্মক দুর্ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। দুর্ঘটনার পর স্থানীয় এলাকাবাসী প্রথমে উদ্ধার কাজ চালিয়ে বেশ কিছু লাশ উদ্ধার করে। পরে সীতাকুন্ড থেকে ফায়ার সার্ভিস এবং মিরসরাই থানা পুলিশ গিয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নেয়।

দুর্ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়লে আশপাশের হাজার হাজার লোক ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। এতে উদ্ধার তৎপরতা কিছুটা ব্যাহত হয়। স্থানীয়রা জানান, ট্রাকটিতে অন্তত ৬০ থেকে ৭০ জন ছাত্র ছিল। ফায়ার সার্ভিস এবং পুলিশ জানিয়েছে, বিকেল ৫টার দিকে উদ্ধার কাজ শেষ হয়েছে।

স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন জানিয়েছেন, নিহতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়ে যেতে পারে। আত্মীয়-স্বজনের দাবি অনুযায়ী এখনো ৫ জন নিখোঁজ রয়েছে। স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, ওই ট্রাকে ৭০-৮০ জন শিক্ষার্থী ছিল। নিহত শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই স্কুলছাত্র। তবে মাদ্রাসা ও কলেজের শিক্ষার্থীও রয়েছে। স্থানীয় মাতৃকা হাসপাতালে ১১ জন, মিরসরাই থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৩ জন ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪জনের লাশ রয়েছে। বাকি লাশগুলো পরিবারের সদস্যরা নিয়ে গেছেন বলে জানা গেছে। পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. নওশের আলী বলেন, ট্রাকটি ডোবা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া নৌবাহিনীর ডুবুরি নামিয়েও আর কোনো লাশ পাওয়া যায়নি। এ কারণে সন্ধ্যা ৬টায় উদ্ধার তৎপরতা শেষ বলে ঘোষণা করা হয়। ৩১ জন শিক্ষার্থীর লাশ শনাক্ত করা হয়েছে বলে তিনি জানান। রাতে আবু তোরাব স্কুলমাঠে নিহত ৩১ শিক্ষার্থীর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার মো. জেড এ মোরশেদ বলেছেন, দুর্ঘটনায় ৭০ থেকে ৮০ জন স্কুলছাত্রের সবাই নিহত হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে তিনি নিহতের সংখ্যা নিশ্চিতভাবে জানাতে পারেননি। অন্য একটি সুত্রে ঘটনাস্থল থেকে ৪০টি লাশ থানায় নিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নিহতরা সবাই আবু তোরাব উচ্চ ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিরসরাই উপজেলা সদরে ফুটবল টুর্নামেন্ট দেখে ছাত্ররা ট্রাকযোগে ফেরার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ট্রাকটি আবু তোরাব বাজারের কাছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাসত্মা থেকে খালে পড়ে যায়। দুর্ঘটনার সাথে সাথে এলাকাবাসী উদ্ধার তৎপরতা শুরম্ন করে। দুর্ঘটনার এক ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজে অংশ নেয়।

জানা যায়, উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে বিগত কয়েকদিন যাবৎ বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা গোল্ডকাপ টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়ে আসছিল। সে ধারাবাহিকতায় সোমবার মিরসরাই স্টেডিয়ামে সকালে ১১নং ইউনিয়ন ও ১৩ নং ইউনিয়নের দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলার উৎসুক জনতার মধ্যে অধিকাংশই ছিল আবুতোরাব হাই স্কুল এবং আঞ্জুমান নেসা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্ররা। খেলা শেষে সকল ছাত্র মিলে হাজী রাইস মিলের একটি বড় পিক-আপ ভাড়া নেয়। দ্রুতগতির পিক-আপটি বড়তাকিয়া বাজার পেরিয়ে আধমাইল পথ অতিক্রম করার পর একটি উঁচু কালভার্ট অতিক্রম করার সময় কালভার্ট ভেঙ্গে নিচের একটি গভীর জলাশয়ে পড়ে উল্টে যায় এবং অধিকাংশ ছাত্র পিক-আপের নিচে পড়ে। গভীর জলাশয় এবং পিক-আপের নিচে পড়ে যাওয়ায় দুর্ঘটনাস্থলেই প্রায় ৫০জন ছাত্রের মৃত্যু হয় বলে সরকারি গনমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়। মুমূর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও ৪ জন মারা যায় । এই রিপোর্ট লেখা পর্যমত্ম নিহত ছাত্রদের ৩১ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে যাদের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন, ধ্রুব নাথ, রনি, ইমরান, ইফতেখার, আনন্দ দাস, জাহিদুল, কামরুল, টিটু দাস, লিটন দাস, জাহিদুল ইসলাম, স্বপন দেবনাথ, রাজিব, রাজু, আনোয়ার, শুভ, সাজু, রাকিবুল, আরিফ, সাজ্জাদ, জুয়েল, মেজবাহ উদ্দিন ও জুয়েল।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং আহতদের জন্য সুচিকিৎসার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া দুর্ঘটনায় নিহত ছাত্রদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি, স্পীকার, প্রধান বিরোধী দলীয় নেত্রী, স্থানীয় সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিনসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংঘঠনের নেতৃবৃন্দ। দুর্ঘটনাস্থলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী আফছারম্নল আমীন পৌঁছেছেন।